ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার-এর ষষ্ঠদশ জাতীয় সম্মেলন-২০১৫ ‘আমাদের আগামী, আমাদের পথ, তারুণ্যের কন্ঠে দৃপ্ত শপথ’

_DSC0902 _DSC0955 _DSC1015 _DSC0994 _DSC1024 _DSC0909 _DSC0003 _DSC1021 _DSC0911 _DSC0935 _DSC0020 _DSC0915সফলতা উদ্যাপন ও অভিজ্ঞতা বিনিময়, দেশের সার্বিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখার দৃপ্ত শপথ ব্যক্ত করার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হলো ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার-এর ষষ্ঠদশ জাতীয় সম্মেলন-২০১৫। ‘আমাদের আগামী, আমাদের পথ, তারুণ্যের কণ্ঠে দৃপ্ত শপথ’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে ২৫-২৬ ডিসেম্বর, ২০১৫ সাভার (ঢাকা) গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র মিলনায়তনে এক উৎসবমুখর পরিবেশে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন থেকে এক হাজার শিক্ষার্থী ও স্বেচ্ছাব্রতী সংগঠক অংশগ্রহণ করে। এছাড়া বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত শিক্ষক ও অভিভাবকগণও সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য যে, এই সম্মেলনের উদ্দেশ্য ছিল: (ক) আত্মমর্যাদা ও আত্মনির্ভরশীল বাংলাদেশ অর্জনের লক্ষ্যে পরিচালিত গণজাগরণের প্রচেষ্টায় ছাত্র-ছাত্রীদের নেতৃত্বে স্বেচ্ছাব্রতী বিভিন্ন উদ্যোগ ও অর্জনের গঠনমূলক পর্যালোচনা করা; (খ) গণজাগরণ থেকে অর্জিত উল্লেখযোগ্য শিক্ষণীয় দিক চিহ্নিত ও অভিজ্ঞতা বিনিময় করা এবং (গ) ২০৩০ সালের মধ্যে এসডিজি’র লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে একটি সমবেত প্রত্যাশা সৃষ্টির মাধ্যমে দেশের জন্যে একটি নতুন ভবিষ্যতের দৃঢ় ভিত্তি গড়ে তোলা। বিস্তারিত পড়ুন

Posted in কার্যক্রম, জাতীয়, বাৎসরিক প্রতিবেদন, সম্মেলন | মন্তব্য দিন

এসডিজি ও বাংলাদেশের তারুণ্য

index২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ ১৯৩টি দেশের রাষ্ট্র/সরকার প্রধানেরা ‘ট্রান্সফরমিং আওয়ার ওয়ার্ল্ড: দ্যা ২০৩০ এজেন্ডা ফর সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট’ শিরোনামের একটি কর্মসূচি অনুমোদন করে, যা সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোলস (এসডিজি) নামে পরিচিত। বিশ্বমানবতার সমৃদ্ধি অর্জনের লক্ষ্যে এটি একটি কর্মপরিকল্পনা, যা বিশ্বব্যাপী শান্তি, স্বাধীনতা ও কার্যকর অংশীদারিত্ব প্রতিষ্ঠিত করবে। বিশ্ব নেতৃবৃন্দের প্রত্যাশা, ২০৩০ এজেন্ডা বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে ক্ষুধা ও দারিদ্র্য থেকে মুক্তি পাবে বিশ্বের কোটি কোটি মানুষ এবং অর্জিত হবে পরিবেশের ভারসাম্য।

এসডিজি: বিশ্ব রূপান্তরের নতুন এজেন্ডা
এসডিজিতে বিস্তারিত, সুদূরপ্রসারী ও গণকেন্দ্রিক, বিশ্বজনীন রূপান্তর সৃষ্টিকারী ১৭টি লক্ষ্য এবং ১৬৯টি টার্গেট অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। লক্ষ্যগুলো হলো: (১) সব ধরনের দারিদ্র্য দূর করা; (২) ক্ষুধা দূর করা; (৩) সবার জন্য স্বাস্থ্যকর জীবন ও বিস্তারিত পড়ুন

Posted in অন্যান্য, জাতীয়, প্রকাশনা, সম্মেলন, সাম্প্রতিক ঘটনাবলী | মন্তব্য দিন

নারীর প্রতি এসিড ও অন্যান্য সহিংসতা প্রতিরোধে সারা দেশে ২২৪ টি প্রচারাভিযান সম্পন্ন

ASF-JAHANABAD HIGH SCHOOLASF-Laxmitari (1)

ASF-Morneya (1)11087940_587440694693066_1333371818_n

বিশ্ব মানচিত্রে বাংলাদেশের জন্য একটি মর্যাদাপূর্ণ অবস্থান প্রতিষ্ঠা করার ক্ষেত্রে নারীর পুরুষের সম্মিলিত এবং সমঅংশগ্রহনের কোন বিকল্প নেই। আমাদের দেশের মূল জনসংখ্যার অর্ধেকই নারী। কিন্তু প্রায় সর্বক্ষত্রেই নারী এখনো পিছিয়ে আছে, এর কারণ সামাজিক, যার ভিত্তি নানা রকম লৈঙ্গিক নির্যাতন ও বৈষম্যমূলক আচরণ।

বিস্তারিত পড়ুন

Posted in কার্যক্রম, প্রচারাভিযান, বাৎসরিক প্রতিবেদন, মানববন্ধন ও প্রচারাভিযান | মন্তব্য দিন

গণিত অলিম্পিয়াড – ২০১৫

11002648_815862518505903_3858749588759167190_n 11295694_953203338044350_8181881033915655791_n Gangni10408653_953202658044418_3187449780406667261_n
তৃণমূল পর্যয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের গাণিতিক মেধার উৎকর্ষ সাধন, গণিতভীতি দূর করা এবং তাদের গণিত চর্চায় উৎসাহিত ও তরুণদের সর্বোচ্চ বিকশের সম্ভাবনা তৈরী করার লক্ষে তৃণমূল থেকে বিভাগীয় শহর পর্যন্ত ২০১৫ সালে ৩৭ টি গনিত উৎসব অনুষ্ঠিত হয় । এইসকল অলিম্পিয়াডে মোট ১২৭৯৪ জন অংশগ্রহন করে যার মধ্যে ছাত্রী : ৬৬৬৯ জন এবং ছাত্র : ৬১২৫ জন।
বিস্তারিত পড়ুন

Posted in কার্যক্রম, গণিত উৎসব | মন্তব্য দিন

চার দিনব্যাপী “সপ্তম ইয়ূথ এক্টিভিস্ট প্রশিক্ষণ” সমাজ পরিবর্তনে মুখ্য ভূমিকা পালন করতে ইয়ূথ লিডারদের অঙ্গীকার গ্রহণ

ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার আন্দোলনের একজন স্বেচ্ছাব্রতী সৈনিক হিসেবে ছাত্র-ছাত্রীদের ক্ষমতায়িত ও উৎসাহিত করতে রাজধানীর আদাবরে অবস্থিত পদক্ষেপ মানবিক উন্নয়ন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হলো ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার আয়োজিত চার দিনব্যাপী “সপ্তম ইয়ূথ এক্টিভিস্ট প্রশিক্ষণ”। গত ৪-৮ অক্টোবর ২০১৫ অনুষ্ঠিত এ প্রশিক্ষণে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আগত ৪০ জন স্বেচ্ছাব্রতী শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। 7th Youth Activist বিস্তারিত পড়ুন

Posted in জাতীয়, প্রশিক্ষণ | মন্তব্য দিন

১৭ সেপ্টেম্বর সংগ্রাম ও ঐতিহ্যের আন্তর্জাতিক মহান শিক্ষা দিবস

12033239_474074479441404_5535457489635758018_nশিক্ষাই তরুণদের সর্বোচ্চ বিকশিত করতে পারে আর তার উপর নির্ভর করছে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সম্ভাবনা। শিক্ষার স্বার্থে রক্ত আর ত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত ইতিহাস। ১৭ সেপ্টেম্বর সংগ্রাম ও ঐতিহ্যের মহান শিক্ষা দিবস। ১৯৬২ সালের এই দিনে পাকিস্তানি শাসন, শোষণ ও শিক্ষা সংকোচন নীতির বিরুদ্ধে লড়াই করতে গিয়ে শহীদ হন ওয়াজিউল্লাহ, গোলাম মোস্তফা, বাবুলসহ নাম না-জানা অনেকেই।
শিক্ষা কোন পন্য নয় শিক্ষা আমার অধিকার, এই অধিকার সবার, শিক্ষাকে সর্বোস্তরে পৌঁছে দিতে বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহন করে আসছে ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার এর সৃষ্টিলগ্ন থেকেই। তারই ধারা বাহিকতায় এ বছর (২০১৫) ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার বাংলাদেশ ঢাকা সাহবাগ, কেন্দ্রীয় জাদুঘরের সামনে আয়োজন করে মানব বন্ধন। মানব বন্ধনে উপস্থিত হয় বিভিন্ন সরকারী বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী সহ ইয়ূথ মোবিলাইজেশন ইউনিটের জান্নাতুল ফেরদৌস ও আমজাদ হোসেন।

Posted in কার্যক্রম, জাতীয়, দিবস উদযাপন, প্রচারাভিযান, মানসম্মত শিক্ষা আন্দোলন | মন্তব্য দিন

তরুণদের কর্মোদ্দীপনা, সৃষ্টিশীলতা ও সামাজিক দায়বদ্ধতাই উন্নয়নের ভিত্তি

11866399_1050788218272674_4672194702692289653_n 11880596_1050788284939334_8047628371497221044_n

১৬তম আর্ন্তজাতিক যুব দিবসে যুবদের কর্মোদ্দীপনা, সৃষ্টিশীলতা ও সামাজিক দায়বদ্ধতা বাড়িয়ে উন্নয়নে তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার লক্ষ্য নিয়ে ঢাকায় ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার- বাংলাদেশ এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত হল  ১৬তম  আন্তর্জাতিক যুব দিবস যার  মূল প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘ইয়ূথ সিভিক এনগেজমেন্ট’। গত ১২ আগষ্ট, ২০১৫ সকাল ১০.০০ টায় ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটিতে (তোপখানা রোড, সেগুন বাগিচা)  গুরুত্বপূর্ন ব্যক্তিবর্গ ও শতাধিক তরুণদের অংশগ্রহনে জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানের মূল প্রবন্ধ পাঠ করে ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার- বাংলাদেশ-এর জাতীয় ফোরামের সদস্য আল-জাহিদ। অভিজ্ঞতা বিনিময় হয় অতিথি ও অংশগ্রহনকারীর মধ্যে এবং একটি প্রানবন্ত প্যানেল ডিসকাশন হয় যার  সঞ্চালনায় ছিলেন ড. বদিউল আলম মজুমদার ।

বিস্তারিত পড়ুন

Posted in জাতীয়, দিবস উদযাপন | মন্তব্য দিন

বরিশলে নৈশ্য শিশুশিক্ষা কেন্দ্র

শিক্ষা মূল, শিক্ষা জগত। ২০১৫ সালে বরিশাল সদরে অনুষ্ঠিত হয় ৬৯৯তম ব্যাচ এ্যাকটিভ সিটিজেন্স ইয়ুথ লিডারশিপ প্রশিক্ষন। প্রশিক্ষনে কিছু সংখ্যক ইয়ুথ শিশু শিক্ষা উদ্যোগ নেয়। ইয়ুথ এদের নিজেদের ব্যক্তিগত টাকা খরচ করে নৈশ্য শিশু শিক্ষা স্কুল চালু করে। বর্তমানে স্কুলে প্রায় ১৫ জন শিশু সপ্তাহের তিন দিন রাতে বরিশালের হিরন স্কায়র ( পাবলিক স্কায়র) নিয়মিত পড়ানো হচ্ছে। ৬৯৯তম ব্যাচ এর সামাজিক উদ্যোগ চলমান আছে। এর দ্বারা ঝড়ে পরা শিশুদের শিক্ষার মান বাড়িয়ে চলবে ও তাদের স্কুলগামী করার ক্ষএে অগ্রনী ভূমিকা পালন করবে।

Posted in অন্যান্য | মন্তব্য দিন

এগিয়ে চলছে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের পাঠশালা

School (1) School (2)

ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুর শাখার পরিচালনায় এগিয়ে চলছে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের পাঠশালা।আমরা একথা ভালো করেই জানি যে, একটি জাতির অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য চাই শিক্ষা। শিক্ষাই পারে জাতিকে উন্নতির চরম শিখরে পৌঁছাতে।

বিস্তারিত পড়ুন

Posted in রংপুর রিজিয়ন | মন্তব্য দিন

স্বপ্নে ফিরল স্বপ্নহারা ৩০টি প্রদ্বীপ

আমরা এখন স্কুলে যাই। আমরা এখন নিয়মিত পড়ালেখা করি। আমরা এখন নিজেকে বড় মনে করি, আর আরও বড় হওয়ার স্বপ্ন দেখি। এই কথাগুলো বলছিলেন কক্সবাজার পাওয়া হাউস এলাকার হতদরিদ্র পরিবারের কিছু শিশুরা। এই শিশুগুলো বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কারণে স্কুল থেকে ঝরে পড়েছিল। তার মধ্যে অন্যতম একটি কারণ ছিল শিক্ষার প্রতি পিতা-মাতার অজ্ঞতা।

বিস্তারিত পড়ুন

Posted in চট্টগ্রাম রিজিয়ন | মন্তব্য দিন

‘১৮এর আগে বিয়ে নয়’ প্রতিশ্রুতি ১,৫০০ শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষক-শিক্ষিকার

people taking oath জাতীয় কন্যা শিশু এডভোকেসি ফোরাম, ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার-বাংলাদেশ, উইমেন এন্ড গার্লস লীড গ্লোবাল এবং ইউএসএআইড বাংলাদেশের যৌথ উদ্যোগে গত ১১ অক্টোবর, ২০১৫ তারিখে মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার জোড়পুকুরিয়া উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক কন্যাশিশু দিবস উদযাপন করে।
প্রায় ১,৫০০ শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষক-শিক্ষিকা প্রতিজ্ঞা করেন যে তারা ১৮ বছর এর আগে বিয়ে করবে না বা বিয়ে হতে দেবে না। এই আয়োজনে ৫০০ জন নারী শিক্ষার্থীর সঙ্গে তাদের অভিবাবকদের বাল্যবিবাহের বিরুদ্ধে অঙ্গীকারের ছবি নিয়ে ছবিমেলার আয়োজন করা হয়। ছবিমেলায় অংশ নেয়া শ্রেষ্ঠ ২০ ছাত্রী ও তাদের পিতামাতার হাতে পুরষ্কার ও সম্মাননা ক্রেষ্ট তুলে দেয়া হয় এবং ৮০ জন ছাত্রী ও তাদের পিতা-মাতাকে বিশেষ পুরষ্কার প্রদান করা হয়।
বিস্তারিত পড়ুন

Posted in দিবস উদযাপন | মন্তব্য দিন

‘তথ্য অধিকার আইন কর্মশালা’ জনগণের মৌলিক অধিকার রক্ষার্থে একটি শক্তিশালী হাতিয়ার

_DSC0505বাংলাদেশে প্রায় দুই দশকের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে গত ২০ অক্টোবর ২০০৮ এ তৎকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকার তথ্য অধিকার অধ্যাদেশ পাস করে। পরবর্তী নির্বাচিত সরকার জনগণের জানার অধিকার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে সরকারি ও বেসরকারি সংগঠনের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বৃদ্ধি, দুর্নীতি হ্রাস ও সুশাসন প্রতিষ্ঠা; জনগণের চিন্তা, বিবেক ও বাকস্বাধীনতার সাংবিধানিক অধিকার প্রতিষ্ঠা সর্বোপরি জনগণের ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে তথ্য-অধিকার নিশ্চিত করতে গত ২৯ মার্চ ২০০৯ তারিখে ‘তথ্য অধিকার আইন, ২০০৯’ পাস করে।
২০০৮ সালে তথ্য অধিকার অধ্যাদেশ জারি করা হলেও ওই অধ্যাদেশের ৮, ২৪ ও ২৫ নম্বর ধারা তিনটি – যথাক্রমে তথ্য প্রাপ্তির অনুরোধ, আপিল দায়ের ও নিষ্পত্তি এবং অভিযোগ দায়ের ও নিষ্পত্তিসংক্রান্ত বিষয়গুলো অকার্যকর থাকায় আইনটি মূলত সুপ্ত অবস্থায় ছিল। ২০০৯ সালে তথ্য অধিকার আইন, ২০০৯ জারি করে ১ জুলাই ২০০৯ তারিখ থেকে ওই ধারাগুলোসহ কার্যকর করা হয় এবং আইনটি বাস্তবায়ন করার জন্য ১লা জুলাই ২০০৯ তারিখেই তথ্য কমিশন গঠন করার মাধ্যমে এর কার্যক্রম শুরু হয়।
বিস্তারিত পড়ুন

Posted in কর্মশালা | মন্তব্য দিন