শিক্ষা বিষয়ক সংবাদ

আলোকিত হবার গল্প
কক্সবাজারের খুরুশকুল ইউনিয়নের রুহুল্লারদিল গ্রামে ৩৩১তম এ্যাকটিভ সিটিজেনস ইয়ূথ লিডারদের উদ্যোগে গ্রামের ৬০ জন নিরক্ষর লোকদের বিনামূল্যে শিক্ষার আলোয় আলোকিত করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে ৫০ জন লিখতে ও পড়তে পারে। গুরুত্বপূর্ণ এই কাজটি করে যাচ্ছেন ২০ বছরের দু’জন মেধাবী তরুণ রমজান ও পিয়ার। তারা স’ানীয় ব্র্যাক অফিসের সহায়তায় ব্র্যাক এর ইনফরমাল স্কুল প্রাঙ্গণেই মহতী এই কাজটি
করে যাচ্ছে। স্কুল চালু করার পূর্বে তারা এলাকায় একটি ক্যাম্পেইনের আয়োজন করে যেখানে ৪০ জন আগ্রহী ব্যক্তি লেখা-পড়া শেখার আগ্রহ দেখায়। সেপ্টেম্বের মাসে এ্যাকটিভ সিটিজেনস ইয়ূথ লিডারশিপ প্রশিক্ষণ গ্রহণের পর তারা অক্টোবর থেকেই স্কুল চালুর উদ্যোগ গ্রহণ করে। সপ্তাহে পাঁচদিন রাত ৮টা থেকে ১০টা পর্যন- তারা স্কুলটি চালায়। গুরুত্বপূর্ণ এই কাজটিতে সার্বিক সহায়তা করে যাচ্ছেন স’ানীয় তরুণ আব্দুল্লাহ যিনি একজন  এ্যাকটিভ সিটিজেনস ফ্যাসিলিটেটর।  তাদের সাথে কথা বলে জানা যায় ভবিষ্যতে নারীদের নিয়ে আরও একটি কেন্দ্র চালু করার পরিকল্পনা রয়েছে।
রিপোর্ট: মামুনুর রশীদ রাদিফ

নীলফামারীর পশ্চিম ছাতনাইয়ে ৩১৬তম এ্যাকটিভ সিটিজেনস ইয়ূথ লিডারদের উদ্যোগে চলছে গণশিক্ষা কার্যক্রম
১৮-২১ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত প্রশিক্ষণ পরবর্তী সামাজিক উদ্যোগের অংশ হিসেবে স’ানীয় ইয়ূথ লিডাররা এলাকার ১২ জন নিরক্ষর ব্যক্তিকে নিয়ে শুরু করে গণশিক্ষা স্কুল। বর্তমানে সকলেই লিখতে ও পড়তে পারে। কাজটিতে সার্বিকভাবে সহায়তা করে যাচ্ছেন এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। স’ানীয় এ্যাকটিভ সিটিজেনস ফ্যাসিলিটেটর ইবনে মিজান নিয়মিত কাজটির ফলোআপ করছেন।
রিপোর্ট: ইবনে মিজান

গণশিক্ষা কেন্দ্র উদ্বোধন
৩০ সেপ্টেম্বর ঝিকড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে একটি গণশিক্ষা কেন্দ্রের উদ্বোধন করা হয়। উদ্বোধন করেন আলহাজ্ব মোঃ এমদাদুল হক ।কেন্দ্রটি পরিচালনা করেন সরদহ ইউনিয়ন ইউনিটের সদস্য ও এ্যাকটিভ সিটিজেনস ইয়ূথ লিডার জুয়েল, তারেকুল ইসলাম, জিয়া, আলামিন, আশরাফুল, খোয়াজউদ্দিনসহ আরও অনেকে। ২০ ডিসেম্বর হুজারপাড়া ইউনিটের উদ্যোগে আরও একটি নিরক্ষরতা দূরীকরণ কেন্দ্র উদ্বোধন করা হয়। এটি উদ্বোধন করেন হুজারপাড়া ইউনিটের মেন্টর অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মোঃ আমজাদ হোসেন। এখানে ১৫ জন নারী নিয়ে কেন্দ্রটি চালু করা হয়। এটি পরিচালনা করেন আনোয়ার ও সানোয়ার। এ অনুষ্ঠানে এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিরা উপসি’ত ছিলেন । অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন মোঃ আশরাফুল ইসলাম সরকার।
রিপোর্ট:  মোঃ আশরাফুল ইসলাম সরকার

প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিতকরণ কার্যক্রম
বাংলাদেশের শিক্ষার মান উন্নয়ন ও প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সিলেট জেলার সুরমা ইউনিটের ইয়ূথ লিডাররা সমগ্র জৈন-া  অঞ্চলের কিছু প্রাথমিক স্কুল বাঁছাই করে বিনামূল্যে টিউশন কার্যক্রম শুরু করেছে। এতে আমাদের সহযোগিতা করছে ৩৩ জন ইয়ূথ লিডার। এছাড়াও তারা তাদের নিজেদের মধ্যে চাঁদা তোলার মাধ্যমে গরীব শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে খাতা ও কলম বিতরণ করছে।
রিপোর্ট: মোহন

নিরক্ষরতা দূরীকরণ বিষয়ক ক্যাম্পেইন
১৫ ডিসেম্বর কেজিপুর জিয়াউল হকের বাড়ির আঙ্গিনায় নিরক্ষরতা দূরীকরণ বিষয়ক ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত হয়। এতে ২৭ জন নারী ও ১৪ জন পুরুষ, আয়োজকসহ মোট ৫০ জন ক্যাম্পেইনে উপসি’ত ছিলেন। এটি আয়োজন করেন এ্যাকটিভ সিটিজেনস ইয়ূথ লিডার জিয়া, কাওছার, মেরিনা ও আলামিন । পরিচালনা করেন মোঃ আশরাফুল ইসলাম সরকার। ক্যাম্পেইন শেষে সিদ্ধান- গ্রহণ করা হয় যে, আগামী জানুয়ারী মাস থেকে জিয়াউরের বাড়িতে নিরক্ষর ব্যাক্তিরা প্রতিদিন বিকাল ৩টা হইতে ৪টা পর্যন- ১ঘন্টা করে লেখাপড়া শিখবে। ১৭ ডিসেম্বর চক ঝিকড়া হুজারপাড়া স্কুলে নিরক্ষতা বিষয়ক আর একটি ক্যাম্পেইন পরিচালনা করা হয়। ক্যাম্পেইনটির আয়োজন করেন হুজারপাড়া ইউনিটের এ্যাকটিভ সিটিজেনস ইয়ূথ লিডার আনোয়ার, সানোয়ার, আব্দুল রহিম, শাকিল, রুনা ও ববি। এতে উপসি’ত ছিলেন ৩৭ জন নারী ও ১১ জন পুরুষ। পরিচালনা করেন মোঃ আশরাফুল ইসলাম। এতে বিশেষভাবে সহযোগিতা করেন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মোঃ আমজাদ হোসেন।
রিপোর্ট:  মোঃ আশরাফুল ইসলাম সরকার

Advertisements

About John Coonrod

Executive Vice President, The Hunger Project
This entry was posted in কার্যক্রম, গণশিক্ষা আন্দোলন. Bookmark the permalink.