বৃক্ষরোপণ বিষয়ক সংবাদ

নেত্রকোনা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বৃক্ষরোপণ
২০ জুলাই নেত্রকোনা জেলা ইউনিটের উদ্যোগে অত্র বিদ্যালয়ে আমলকী, আকাশীসহ বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষরোপণ করা হয়। কর্মসূচিটিতে উপসি’ত ছিলেন অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা রওশন আরা খান, দি হাঙ্গার প্রজেক্ট কর্মী এ.এন.এম নাজমুল হোসাইন, বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা, ইয়ূথ লিডার অরবিল, সংগীতা, তপতী, রাজিব ও আনিস। কার্যক্রমটি আয়োজনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন ইয়ূথ ফ্যাসিলিটেটর মোঃ আনিসুর রহমান।
রিপোর্ট: মোঃ আনিসুর রহমান

জালালপুরে বৃক্ষরোপণে উদ্বুদ্ধকরণ র‌্যালী
৭ আগস্ট জালালপুর ইউনিটের উদ্যোগে জালালপুর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের আশে-পাশের এলাকার মানুষদের বৃক্ষরোপণে উদ্বুদ্ধ করা লক্ষ্যে একটি র‌্যালির আয়োজন করা হয়। উক্ত র‌্যালিটি জালালপুর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় হয়ে জালালপুর আশা অফিসের সামনে দিয়ে প্রদক্ষিণ করে জালালপুর গ্রাম ঘুরে আবার জালালপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে এসে শেষ হয়। এতে স’ানীয় ঝাকালীয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন। এ র‌্যালীতে করিমগঞ্জ থেকে আগত দুইজন অতিথি ইয়ূথ বন্ধু আব্দুল্লাহ আল মামুন ও শাজনীন তাসনীম মিতু উপসি’ত ছিলেন। এ আয়োজনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন মোজাম্মেল হক, ডালিম, সেলিনা, কোহিনুর, সামিরা রহমান ও আমেনা।

মুন্সিগঞ্জের রামপালে ইয়ূথ লিডাদের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ
২৫-৩০ অক্টোবর পর্যন- স’ানীয় ইয়ূথ লিডাদের উদ্যোগে রামপাল ডিগ্রী কলেজ, বছিরুন্নেছা উচ্চ বিদ্যালয়, রামপাল এনবিএম উচ্চ বিদ্যালয় ও চুরাইন এ পাঁচশত অর্জুন, নিম, কাঁঠাল, কড়ই, আকাশী, বেল ও নিমের  চারা রোপণ করা হয়। এই কাজে সার্বিক সহযোগিতা করে রামপাল ইউনিয়ন পরিষদ ও সার্বিক ব্যবস’াপনায় ছিল এ্যাকটিভ সিটিজেনস ফ্যাসিলিটেটর ফারজানাসহ রামপাল ডিগ্রী কলেজ ইউনিট।
রিপোর্ট: ফারজানা
কটিয়াদীতে ২য় পর্যায়ের ট্রেনিং সমাপ্ত হওয়ার ১ বৎসর পূর্তিতে বৃক্ষরোপণ, মিষ্টিমুখ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান
কটিয়াদী উপজেলা ইউনিটের উদ্যোগে ৪ নভেম্বর সকাল ৯ টায় কটিয়াদী ডিগ্রী কলেজ অধ্যাপক মোজাফ্‌ফর আহমদ ভবনে কটিয়াদী কমিউনিটি নির্বাচিত হওয়ার পর ৪টি এ্যাকটিভ সিটিজেনস ইয়ূথ লিডার্স ট্রেনিং সফল ভাবে সমাপ্ত হওয়ার ১ বছর পূর্তি ও ২য় বর্ষে পদাপর্ণ উপলক্ষে বৃক্ষরোপণ, আলোচনা সভা, মিষ্টিমুখ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সমাপ্ত হওয়ার পর ১ম বর্ষপূর্তি ও ২য় বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে দিনটিকে স্মরণীয় রাখতে ১টি ফলজ, ১টি বনজ ও ১টি ঔষধী গাছের চারা রোপণ করা হয়। এই দিনে ইয়ূথ লিডাররা একে অন্যের মাঝে মিষ্টি বিতরণও করেন। ফলজ গাছের চারাটি রোপণ করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি আলহাজ্ব ডাঃ আঃ মুক্তাদির ভূঁইয়া বাচ্চু, উপজেলা স্বাস’্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা, কটিয়াদী। বনজ গাছটি রোপণ করেন কটিয়াদী উপজেলা ইউনিটের প্রধান উপদেষ্টা, বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ উদ্যোগের মেন্টর ও কিশোরগঞ্জ জেলা উজ্জীবক ফোরামের সভাপতি জনাব আঃ ওয়াহাব আইন উদ্দিন, ঔষধী গাছটি রোপণ করেন ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার ও এ্যাকটিভ সিটিজেনদের উপজেলা সমন্বয়ক মোজাম্মেল হক ও সৈয়দ হাকিকুল ইসলাম। উক্ত অনুষ্ঠানে আরও উপসি’ত ছিলেন প্রথম আলো কটিয়াদী উপজেলা প্রতিনিধি সিরাজুল সালেহীন রাহাত, এনামুল হক শাহীন, প্রভাষক, ডাঃ আঃ মান্নান মহিলা কলেজ, সৈয়দ শাহাদাৎ হোসেন সাধু, বিশিষ্ট ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব, কটিয়াদী।  বৃক্ষরোপণ শেষে অতিথি ও ইয়ূথ বন্ধুরা একে অন্যের মুখে মিষ্টি দিয়ে দিনটিকে স্মরণীয় করেন। ২য় পর্বে অনুষ্ঠিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে গান পরিবেশন করেন রিয়াজুল হক মবিন, অমিত বণিক, সুমিত বণিক, ইতি বণিক, মোজাম্মেল হক, আজিমুল ইসলাম নাঈম, ওবায়দুল্লাহ আকন্দ ভূবন ও শফিকুল ইসলাম। এ সময় নভেম্বর মাসের কর্ম পরিকল্পনা গৃহীত হয়। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন মোজাম্মেল হক। প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন আজকের তরুণরা আমাদের বাংলাদেশকে এগিয়ে নেওয়ার পাথেয় হিসেবে কাজ করবে। বিশেষ অতিথি ও মেন্টর আঃ ওয়াহাব আইন উদ্দিন বলেন, আমি মেন্টর হিসেবে তাদের কাজগুলো তদারকি করি ও তাদেরকে সহযোগিতা করি। এ অনুষ্ঠানটি সফল ভাবে আয়োজনে সার্বিক সহযোগিতা করেন মুক্তা, অমিত, সুমিত, বাবু, মবিন, শামীম, ঝর্ণা, ভুবন, ডালিম, ফাতেমা, বোরহান ও রাবু।
রিপোর্ট: মোজাম্মেল হক

হেসাখালে বৃক্ষরোপণ ও নিরক্ষর ব্যক্তিদের সচেতনায় উঠান বৈঠক
৫ নভেম্বর কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার হেসাখাল গ্রামে এ্যাকটিভ সিটিজেনস ৩০৯তম ব্যাচের উদ্যোগে ‘‘গাছ লাগাই, পরিবেশ বাঁচাই, নিজে বাঁচি’’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে আয়োজন করা হয় বৃক্ষরোপণ অভিযান। এতে গ্রামের একটি রাস-ায় বিভিন্ন প্রজাতির ৫০টি ফলজ, বনজ, ঔষধি  গাছের চারা রোপণ করা হয়। একই দিন গ্রামের নিরক্ষর ব্যক্তিদের অক্ষরজ্ঞান সম্পর্কে সচেতন করতে আয়োজন করা হয় উঠান বৈঠক। এতে গ্রামের ২৫জন অক্ষরজ্ঞানহীন নারী অংশগ্রহণ করেন। বৈঠকে নিরক্ষর ব্যক্তিদের লেখাপড়ার  গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা নিয়ে আলোচনা করা হয়। প্রোগ্রামটি পরিচালনা করেন এ্যাকটিভ সিটিজেনস ফ্যাসিলিটেটর তানভীর হাছান ও আতিকুর রহমান। প্রোগ্রামটির আয়োজন করে ৩০৯তম ব্যাচের এ্যাকটিভ সিটিজেনস সাইফুল ইসলাম, শানি- , নূরুন্নাহার ও রিনা আক্তার ।
রিপোর্টঃ তানভীর হাছান

Advertisements