কর্মশালা ও ইউনিট গঠনের খবর

সিরাজগঞ্জের কোনাবাড়ী শহীদুল বুলবুল ডিগ্রী কলেজে কর্মশালা

১২ ফেব্রুয়ারি ২০১১ সিরাজগঞ্জ জেলার কোনাবাড়ী শহীদুল বুলবুল ডিগ্রী কলেজে ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার-বাংলাদেশ পরিচালিত “প্রত্যাশা প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম শীর্ষক” কর্মশালার আয়োজন করা হয়। কর্মশালায় কোনাবাড়ী শহীদুল বুলবুল ডিগ্রী কলেজের ২৩ জন ছাত্র ও ৪৭ জন ছাত্রী উপসি’ত থেকে সামাজিক দায়বদ্ধতার ভিত্তিতে সমাজের বিভিন্ন কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করার প্রতিশ্রুতি  ও এই সম্পর্কিত বিভিন্ন কাজ হাতে নেয়। কর্মশালার পর ১৪ সদস্য বিশিষ্ট একটি ইয়ূথ ইউনিট গঠিত হয় এবং ইউনিটের কো-অর্ডিনেটর হিসেবে মোঃ শামীম সরকার দায়িত্ব গ্রহণ করে। কর্মশালায় আরও উপসি’ত ছিলেন অত্র কলেজের অধ্যক্ষ মহোদয়, শিক্ষক মন্ডলী ও দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ এর রাজশাহী অঞ্চলের আঞ্চলিক সমন্বয়কারী জাকারুল ইসলাম। প্রাণবন- কর্মশালাটি পরিচালনা করেন ইয়ূথ ফ্যাসিলিটেটর মোঃ মাহমুদুল হাসান তুহিন।
রিপোর্ট:
মাহমুদুল হাসান তুহিন

কুমিল্লায় প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম শীর্ষক কর্মশালা ও ইউনিট গঠন

কুমিল্লা জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলার হেসাখাল ইসলামিয়া মাদ্রাসায় ১০ম শ্রেণীর ৪০ জন ছাত্র-ছাত্রী নিয়ে গত ১৫ মে ২০১১ প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয় এবং কর্মশালা শেষে ১১ সদস্য বিশিষ্ট একটি ইউনিট গঠিত হয়। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন আতিকুর রহমান ও দি হাঙ্গার প্রজ্রেক্ট বাংলাদেশ এর কুমিল্লা অঞ্চলের এলাকা সমন্বয়কারী আশিক আহমেদ।
গত ২২ মে ২০১১ কুমিল্লা জেলার মনোহরগঞ্জ উপজেলার মৈশাতুয়া ইউনিয়নের নীলকান- ডিগ্রী কলেজে ১২জন ছত্র ও ১৭ জন ছাত্রী নিয়ে একটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালা শেষে ১১ সদস্যের একটি ইউনিট কমিটি গঠিত হয়। এই কর্মশালাটি পরিচালনা করেন আতিকুর রহমান ও কামরুল হাসান।
গত ২২ মে ২০১১ কুমিল্লা জেলার জেলার লাকসাম উপজেলার গণউদ্যোগ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ১০ম শ্রেণীর ৩৬ জন ছত্রীকে নিয়ে একই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয় এবং কর্মশালা শেষে ১১ সদস্যের একটি ইউনিট কমিটি গঠিত হয়। এই কর্মশালাটি পরিচালনা করেন আতিকুর রহমান, মাইরিন মজুমদার ও কামরুল হাসান।
রিপোর্ট – আতিকুর রহমান
দি হাঙ্গার প্রজেক্ট মিলনায়তনে কর্মশালা ও  ইউনিট ফলোআপ অনুষ্ঠিত

১৬ মে ২০১১ দি হাঙ্গার প্রজেক্ট এর হল রুমে একটি প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত  কর্মশালায় ৩৫ জন ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহণ করে। এই কর্মশালাটির মধ্য দিয়ে দেশের উন্নয়নমূলক কাজে কিভাবে তারা সম্পৃক্ত হতে পারে ও কিভাবে এর মাধ্যমে নিজের উন্নয়ন সম্ভব সে সম্পর্কে  আলোচনা করা হয়। এছাড়া তাদের  ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার এর বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করা হয়। তারা নিজেরা উদ্যোগ নিয়ে কিভাবে কাজগুলো সম্পন্ন করবে সে সম্পর্কেও দিক- নির্দেশনা প্রদান করা হয়। কর্মশালা পরিচালনা করেন গণগবেষণা ইউনিটের মাহমুদ হাসান রাসেল। কর্মশালা শেষে ঢাকা সিটি ইউনিটের কো-অর্ডিনেটর রনি ও অন্যান্য সদস্য সজিব, লিপি, সারাহ, অনিক, মনির, মিজান ঢাকায় ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার এর কার্যক্রম বিস-ৃত করার জন্য কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সহযোগিতায় একটি কর্ম তালিকা তৈরি করে। কর্মশালাটি আয়োজন করে  ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার-বাংলাদেশ সচিবালয়ের কর্মীরা।   
রিপোর্ট:
কাজি রাবেয়া এমি

বেতাগা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত
২০ মে ২০১১ বাগেরহাটের বেতাগা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রত্যাশা প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত কর্মশালায় ৪৫ জন ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহণ করে। এই কর্মশালাটির মধ্য দিয়ে তাদের এ্যাকটিভ সিটিজেনস এর বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করা হয়। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক উদ্যোগমূলক কাজ সম্পর্কে আলোচনা করা হয়। যেখানে তারা নিজেরা উদ্যোগ নিয়ে কাজগুলো সম্পন্ন করবে। কর্মশালা পরিচালনা করেন জি.এম,শোয়েব আহমেদ ও শাহীন মাহমুদ।
রিপোর্ট:
সালেহ আকরাম

ঢাকার ন্যাশনাল হোম ইকোনোমিকস কলেজে কর্মশালা ও ইউনিট গঠন

গত ২৪ মে ২০১১ ঢাকার লালমাটিয়ায় ন্যাশনাল হোম ইকোনোমিকস কলেজে একটি প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত কর্মশালায় ২৫ জন ছাত্রী অংশগ্রহণ করে। এই কর্মশালাটির মধ্য দিয়ে তাদের  ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার এর বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করা হয়। কর্মশালা পরিচালনা করেন গণগবেষণা ইউনিটের মাহমুদ হাসান রাসেল ও ইয়ূথ ইউনিটের এমি। কর্মশালা শেষে একটি ইউনিট গঠিত হয় যার কো-অর্ডিনেটর ও যুগ্ম কো-অর্ডিনেটর নির্বাচিত হয় যথাক্রমে ফাতেমা অনি- ও জোহরা শিমু ।
রিপোর্ট
কাজী রাবেয়া (এমি)

চলনবিল কারিগরি ও কমার্স কলেজে ইয়ূথের নতুন ইউনিট গঠন
ক্ষুধা-নিরক্ষরতা মুক্ত, আত্মনিভর্রশীল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে ছাত্র-ছাত্রীদের সামাজিক উন্নয়নে সম্পৃক্ত ও গণজাগরণে উদ্বুদ্ধ করতে প্রয়োজন নতুন তরুণদের নেতৃত্বের বিকাশ। তারই আলোকে ৫ জুন ২০১১ নাটোর জেলার গুরুদাসপুরের বিয়াঘাটে চলনবিল কারিগরি ও কমার্স কলেজে প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম শীর্ষক কর্মশালার মাধ্যমে উপসি’ত ৩৭ জন ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্য থেকে আগ্রহী ১১ সদস্য বিশিষ্ট কার্যকর কমিটি ও অন্যান্যদের সাধারণ সদস্য করে চলনবিল কারিগরি ও কমার্স কলেজে চলনবিল কারিগরি ও কমার্স কলেজে ইউনিট নামে একটি নতুন ইয়ূথ ইউনিট গঠন করা হয়। উক্ত কর্মশালার আয়োজন করেন জনাব মোঃ হাবিবুর রহমান, প্রভাষক হিসাব বিজ্ঞান, অত্র কলেজ (ভি.টি.আর ও সম্পাদক উপজেলা সুজন কমিটি) এবং কর্মশালা পরিচালনা ও ইউনিট গঠনে দায়িত্ব পালন করেন মোঃ শরিফুল ইসলাম (ইয়ূথ ফ্যাসিলিটেটর, নাটোর)। পড়ালেখার পাশাপাশি সমাজ ও দেশের উন্নয়নে সাধ্যমতো অবদান রাখার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করে নতুন এই ইয়ূথ ইউনিটের সদস্যরা।

রিপোর্ট:
মোঃ শরিফুল ইসলাম

খাগড়াছড়িতে প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম শীর্ষক কর্মশালার আয়োজন
“দিন যতই বাড়ছে, প্রত্যেক মানুষের সামাজিক ঋণের বোঝা ততই বাড়ছে” এবং এই ঋণ পরিশোধ করা দরকার এমনই সামাজিক দায়বদ্ধতার ভিত্তিতে খাগড়াছড়ির ইয়ূথ লিডাররা (শহিদুল ইসলাম, নূর হোসাইন, সজিব, জায়েদ, কায়কোবাদ) গত ১১  ১৫ জুন পর্যন- খাগড়াছড়ির মোট ৬টি স্কুল ও কলেজে প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম শীর্ষক কর্মশালার মাধ্যমে ৬টি ইউনিট গঠন করে। কর্মশালাগুলোতে প্রায় ৩২০ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। উক্ত ৬টি কর্মশালাই পরিচালনা করে ইয়ূথ এ্যাক্টিভিস্ট এম.আর.রনি। এই কর্মশালায় অংশগ্রহণ করে শিক্ষার্থীরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয় যে, সামাজিক ঋণ পরিশোধে তারা আজ থেকেই সচেষ্টভাবে কাজ করবে। এছাড়া উক্ত কর্মশালাগুলোতে ঐসব স্কুল ও কলেজের শিক্ষকরাও অংশগ্রহণ করেন এবং তারা অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, এই ধরনের প্রোগ্রাম আরও বেশি বেশি করে হওয়া দরকার যাতে সবার মধ্যে সামাজিক ঋণ শোধের বোধ বাড়ে এবং তখনই সবাই ঋণ পরিশোধে সচেষ্ট হবে। উক্ত কর্মশালাগুলোর আয়োজন ও সমন্বয় করে খাগড়াছড়ির ইয়ূথ লিডার শহিদুল ইসলাম, নূর হোসাইন,
সজিব, জায়েদ, কায়কোবাদসহ আরও অনেকে।
রিপোর্ট:
এম.আর.রনি।

 

Advertisements