রংপুর অঞ্চলের খবরা-খবর

নিরক্ষরতা দূরীকরণে গণশিক্ষার উদ্যোগ

রংপুর সদরের ১১নং ওয়ার্ড, নূরপুর ইউনিটের এ্যাকটিভ সিটিজেনস ইয়ূথ লিডাররা তাদের নিজ এলাকার লোকদের নিরক্ষরতা দূরীকরণ ও এলাকার পরিবেশ উন্নয়নের লক্ষ্যে গণশিক্ষা কার্যক্রম শুরু করে। এরই ধারাবাহিকতায় নূরপুরের মহাদেবপুরে ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১১ বিকাল ৪:৩০ মিনিটে এলাকার ১৫ জন নিরক্ষর নারী শিক্ষার্থী নিয়ে গণশিক্ষা কেন্দ্রের উদ্বোধন করে। এতে নেতৃত্ব দেয় নূরপুর ইউনিটের এ্যাকটিভ সিটিজেনস ইয়ূথ লিডার- জাকিয়া সুলতানা, রাজিয়া সুলতানা, আরেফিন, সুমাইয়া, লাকী, শারমিন, কণা, সুইটি, আশরাফুল ও লালন সহ আরও অনেকে। উক্ত শিক্ষাকেন্দ্রের শিক্ষার সময়সূচী নির্ধারণ করা হয় সপ্তাহে ৫ দিন এবং বিকাল ৪:৩০ থেকে ৫:৩০ পর্যন-। পাঠদানের দিনগুলো হলো শনি, রবি, মঙ্গল, বুধ ও বৃহস্পতিবার। উল্লেখিত দিনগুলোতে শিক্ষাদান করবে এলাকার এ্যাকটিভ সিটিজেনস ইয়ূথ লিডাররা। পাশাপাশি, উদ্বোধনী দিনে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপসি’ত ছিলেন হাসান, তিশা ও রিপন। যারা গণশিক্ষা কার্যক্রম সম্পর্কে তাদের নিজ নিজ মতামত ব্যক্ত করেন। পরিশেষে, জাকিয়ার শিক্ষাদানের মধ্য দিয়ে উক্ত উদ্বোধনী দিনের শিক্ষা কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়।

ইভটিজিং প্রতিরোধে মানববন্ধন ও আলোচনা সভা

সমাজে যখন সামাজিক আন্দোলন গুলো গড়ে উঠেছে ঠিক তখনি কুড়িগ্রামের মধাব রাম ভোগডাঙ্গা ও মোগল বাসা ইউনিয়নে ইয়ুথ এন্ডি হাঙ্গার আয়োজনে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট ও ব্রিটিশ কাউন্সিল এর সহযোগিতায় ইভ টিজিং প্রতিরোধে একটি মানববন্ধন ও আলোচনা সভা ২৫ নভেম্বর ২০১০ অনুষ্ঠিত হয়।  উক্ত মানববন্ধনের মাধ্যমে সমাজে ইভ টিজিং এর মত জঘন্যতম অপরাধের প্রতিবাদ করা হয়। এর মাধ্যমে সমাজের ক্ষতিকর দিক গুলো তুলে ধরে এর বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার প্রতিজ্ঞা করা হয়। উক্ত দুটি ইউনিয়নে স’ানীয় গন্যমান্য ব্যক্তি ও মোগল বাসা বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রী, শিক্ষক এবং ইয়ূথ লিডারদের উপসি’তিতে সকলে এক সঙ্গে শপথ করেন যে, আমরা কখনো ইভটিজিং করবো না এবং কাউকে করতে দেবনা।
রিপোর্ট- মোঃ মতিয়ার রহমান

Advertisements