পাঠচক্রের খবর

জয়ন্তী ইউনিটের আয়োজনে গত ৪ ডিসেম্বর, ২০০৮ মধ্যপাড়া দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে একটি পাঠচক্র অনুষ্ঠিত হয়। প্রয়াত জহির রায়হান রচিত ‘হাজার বছর ধরে’ উপন্যাসটিকে পাঠচক্রের বিষয়বস্তু হিসেবে বেছে নেয়া হয়। ইয়ূথ বন্ধুরা তাদের আলোচনায় একটি নিম্নবিত্ত পরিবারের সংগ্রামের চিত্র ও নারীর দুর্বিসহ জীবনের প্রতিচ্ছবি তুলে আনেন। এই পাঠচক্রে জয়ন্তী, নক্ষত্র ও তারুণ্য ইউনিটের প্রায় ৬০ জন সদস্য অংশগ্রহণ করেন. এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকবৃন্দ। আয়োজনে বিশেষ ভূমিকা রাখেন তাছলিমা, জান্নাতা, সম্পা, শাওন, তানিয়া, মোজাম্মেল ও হাকিকত।

আনন্দমোহন কলেজ ইউনিটের আয়োজনে ‘নির্বাচন উত্তর বাংলাদেশের পরিস্থিতি এবং আমাদের করণীয়’ শীর্ষক একটি পাঠচক্র অনুষ্ঠিত হয় গত ৪ জানুয়ারি, ২০০৯। পাঠচক্রে উপস্থিত সদস্যরা নির্বাচন পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশের বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত নির্বাচন সম্পর্কিত সংবাদ, সম্পাদকীয় কলাম থেকে তথ্য উপাত্ত নিয়ে আলোচনা করেন। জাতীয় সংসদের কার্যক্রমকে সচল রাখার জন্য সরকারী দল, বিরোধী দল ও সাধারণ নাগরিকের কি ভূমিকা তা নিয়েও আলোচনা করা হয়। পাঠচক্রটিতে সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন এ.কে. মানিক। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন সব্যসাচী, তাইজুল, হাসান, লীজা, রাফি, অদিতি, লাকী, মৌসুমী, জিনাত, কাওসার, রাকিব, হৃদি, পরশ, ইলিয়াস, পিয়াস, তন্বী ও আরমান।

আমিরুননেছা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের আয়োজনে ‘কম্পিউটার জগৎ’ শীর্ষক এক পাঠচক্র অনুষ্ঠিত হয় গত ৭ জানুয়ারি। এতে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কম্পিউটারের শিক্ষক জনাব মোঃ মোজাফফর হোসেন। তিনি বলেন, এই রকম পাঠচক্রের মধ্য দিয়েই কম্পিউটারের প্রতি সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের ভীতি দূর করা সম্ভব হবে, এরকম আয়োজনের জন্য ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গারকে ধন্যবাদ। পাঠচক্রটি আয়োজনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন অধীশ দাশ, মোঃ আসলাম বিশ্বাস, অন্তরা, রাখি ও সুব্রত।

ঐতিহ্যবাহী গৌরীপুর সিংজানী বর্ণমালা ইউনিট গত ৬ ফেব্রুয়ারি ‘আলোকিত মানুষ চাই’ শীর্ষক এক পাঠচক্রের আয়োজন করে। এতে লেতু মন্ডল ইউনিট, তাঁতকুড়া ও বর্ণমালা ইউনিটের সদস্যরা অংশগ্রহণ করেন। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিংজানী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শফিকুল আলম, ইয়ূথ লিডার বিদ্যুৎ কুমার নন্দী, নয়ন কুমার দাশ, হুমায়ুন কবির। এতে আলোচকরা তাদের বক্তব্যের মধ্য দিয়ে নিজেকে আলোকিত করার পাশাপাশি দেশের জন্য অবদান রাখার কথাও তুলে ধরেন। পাঠচক্রটিতে সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন ইয়ূথ লিডার রাশিদ। আয়োজনে বিশেষ ভূমিকা রাখেন বিউটি, স্বর্ণালী, আজম, তনয়, ফরিদা ও মামুন।

‘শিশুর চোখে থাকলে জল, বিশ্ব জগৎ টলমল’- এই স্লোগানকে সামনে রেখে গত ২২ ফেব্রুয়ারি পাটকেলঘাটা হারুণ-অর-রশিদ কলেজ ইউনিটের আয়োজনে একটি পাঠচক্র অনুষ্ঠিত হয়। পাঠচক্রের মূল বিষয় ছিল ‘শিশু অধিকার’। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধীশ দাশ। এতে প্রায় ৩৫ জন ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহণ করেন। পাঠচক্রটি পরিচালনা করেন অধ্যাপক উৎপল মন্ডল।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি পাটকেলঘাটা হারুণ-অর-রশিদ কলেজ ইউনিটের উদ্যোগে একটি ইংরেজি পাঠচক্র সভার আয়োজন করা হয়। সভার মূল বিষয় ছিল সমস্ত পাঠচক্রটি ইংরেজিতে পরিচালনা করতে হবে এবং প্রত্যেককে ২টি করে ইংরেজি শব্দ বলতে হবে। ৭০ জন শিক্ষার্থী নিয়ে পাঠচক্রটি পরিচালনা করেন অধ্যাপক নাজমুল হোসেন। কার্যক্রমটি সমন্বয় করেন অধীশ দাশ ও অমিত ঘোষ। পরে সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত নেয়া হয় যে, প্রতি সপ্তাহের বৃহস্পতিবারে নিয়মিতভাবে এরকম একটি পাঠচক্র সভা করা হবে।

২৫ ফেব্রুয়ারি ক্রোড়গাছা শিপের বাজার গোবিন্দগঞ্জ শাপলা ইউনিটের আয়োজনে একটি পাঠচক্র অনুষ্ঠিত হয়। বিষয় ছিল ‘রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জীবনী’। শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য ও পুরো পাঠচক্রটি পরিচালনা করেন ইউনিট কোঅর্ডিনেটর এ.এস. সুলতান। মূল প্রবন্ধ তৈরি করেন সামান্তা আক্তার টুম্পা, এম.এস. সুলতান ও সানজিদা হক। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সমাজ সেবক শাহজাহান প্রধান সাজু। আয়োজনে বিশেষ ভূমিকা রাখেন সুমন, আনিছুর ও আসাদ।

ঢাকা সিটি ইউনিটের আয়োজনে গত ২০ মার্চ একটি পাঠচক্র অনুষ্ঠিত হয়। দি হাঙ্গার প্রজেক্ট মিলনায়তনে আয়োজিত এই পাঠচক্রের বিষয় ছিল ‘ট্রানজিট’। ট্রানজিট কি, এর উপকারিতা, ক্ষতিকর দিক এবং বাংলাদেশের অর্থনীতির উপর এর প্রভাব নিয়ে আলোচনা ও মতবিনিময় করা হয়। পাঠচক্রের মূল প্রবন্ধ তৈরি করেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ইউনিটের সাত্যকি রায়, প্রবন্ধটি উপস্থাপন করেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ইউনিটের রাসেল। এতে আরো অংশগ্রহণ করে বেগম বদরুন্নেসা কলেজ, ঢাকা মেট্রোপলিটন ডিগ্রী কলেজ, শেরে বাংলা কৃষি কলেজ, ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি ইউনিটের ১২ জন সদস্য ও দি হাঙ্গার প্রজেক্ট কর্মী ইন্দ্রাণী কুন্ডু। আয়োজনে বিশেষ ভূমিকা রাখেন লিপি, রনি, মাহী, সজীব।

২১ মার্চ নেত্রকোনা জনতা উচ্চ বিদ্যালয়ে নেত্রকোনা সরকারী কলেজ ইউনিটের আয়োজনে একটি পাঠচক্র অনুষ্ঠিত হয়। এতে দশম শ্রেণীর ২০ জন ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহণ করেন। পাঠচক্রের বিষয় ছিল দশম শ্রেণীর পাঠ্য বইয়ের গল্প ‘মহাপতঙ্গ’। এটি পরিচালনা করেন ইয়ূথ এক্টিভিস্ট মোঃ শাহজাহান কবির, তাকে সহযোগিতা করেন ইয়ূথ লিডার মোঃ মাহাবুব রহমান খান। আয়োজনে সার্বিক ভাবে সহযোগিতা করেন জনতা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

রিপোর্ট: তানিয়া নাসরিন বর্ণালী, অলক সরকার, তৃষ্ণা সান্যাল, মুহাম্মদ হুমায়ুন কবির, অধীশ দাশ, এম.এস. সুলতান, লিপি আক্তার, সামিউল হাসান সজীব, মোঃ শাহজাহান কবির।

আমরা করব জয়-৬৬

Advertisements

One comment

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়েছে।