কর্মশালার খবরা-খবর

image6

গত ১০ অক্টোবর, ২০০৮ ডিমলা থানার খালাশী চাপানী ইউনিয়নে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ‘প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ শীর্ষক কার্যক্রম। কার্যক্রমে প্রায় ৬০-৭০ জন অংশগ্রহকারী নিবেদিতভাবে অংশগ্রহণ করেন। মূলত কর্মশালার মাধ্যমে অংশগ্রহকারীদের মাঝে সমাজের প্রতি তাদের সামাজিক দায়বদ্ধতাবোধের জন্ম নেয়। এছাড়া সামাজিক ঋণ শোধের উপায় বিষয়ে জানতে পারেন। সামাজিক ঋণ শোধের উপায় হিসেবে অংশগ্রহণকারীরা দুই মাসের একটি পরিকল্পনা গ্রহণ করেন। কর্মশালার মধ্য দিয়ে একটি ইউনিট গঠন করা হয়। গঠিত ইউনিটের কো-অর্ডিনেটর সর্বসম্মতিক্রমে আবুল কালাম আজাদসহ মনোয়ার আশরাফুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মিস, আকলিমা খাতুন প্রচার সম্পাদক সাবিনা ইয়াসমিন অর্থসচিব হিসাবে নির্বাচিত হয়।

গত ১২ অক্টোবর, ২০০৮ কুষ্টিয়া জেলার জগতি ইউনিয়নের ঝালুপাড়া গ্রামের ঝালুপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় ২০ জন ছাত্র-ছাত্রী উপস্থিত ছিলেন। তিন ঘণ্টা ব্যাপী কর্মশালা শেষে সর্বসম্মতিক্রমে পারুলকে কো-অর্ডিনেটর করে ১১ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটি গঠনের মাধ্যমে তারা এক মাসের কর্মপরিকল্পনা হাতে নেয় এবং তারা সিদ্ধান্ত নেয় তাদের ইউনিটের প্রথম কাজ হবে বয়স্ক শিক্ষা নিয়ে। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন ইয়ুথ লিডার মাহিন ইসলাম এবং কর্মশালার সার্বিক তত্ত্বাবধান করেন রোমান পারভীন, ভিটিআর, দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ।

গত ১৭ অক্টোবর ছৈয়দিয়া ইউনিটের উদ্যোগে লক্ষিদিয়া পাটোয়ারী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন ছৈয়দিয়া ইউনিটের কো-অর্ডিনেটর মো আনোয়ার হোসেন রাজু, এমদাদুল ইসলাম ও মোঃ হাছান। কর্মশালাটি সকাল ৯টায় শুরু হয়। কর্মশালা শেষে মো ওছমান গণিকে কো-অর্ডিনেটর এবং মোঃ এমরুল ইসলামকে যুগ্ম-কো-অর্ডিনেটর নির্বাচন করে লক্ষিদিয়া ইউনিট নামে একটি নতুন ইউনিট গঠন করা হয়। এতে মোট উপস্থিতির সংখ্যা ছিল ২৬ জন।

স্থানীয় উজ্জীবক ও পি,এস,এস এর চেয়ারম্যান ইমতিয়াজ ইসলাম বসুনিয়া এর আয়োজনে চিলাহাটি সরকারি মহাবিদ্যালয়ে ‘প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম শীর্ষক কর্মশালা’ অনুষ্ঠিত হয়। গত ২০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত কর্মশালায় এইচ,এস,সি থেকে ডিগ্রী ক্লাসের প্রায় ১৪০ জন ছাত্র-ছাত্রী উপস্থিত ছিলেন। যার মধ্যে ৭৯ জন বিভিন্ন শ্রেণীর ছাত্রী এবং ৬৭ জন ছাত্র। অনুষ্ঠানের প্রথমে প্রভাষক শান্তনু কুমার পাল, ইমতিয়াজ ভাই কর্মশালায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। কর্মশালা শেষে মোঃ মাসউদ রফিক উজ্জল কে কো-অর্ডিনেটর এবং মোছাঃ শারমিন আক্তারকে সহকো-অর্ডিনেটর করে মোট ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়। আলোচনার ভিত্তিতে এক মাসের একটি পরিকল্পনা গ্রহণ করে। আর এই কর্মশালাটি পরিচালনা করে ইয়ুথ একটিভিষ্ট রাতুল।

গত ২০ শে অক্টোবর ২০০৮ এ সকাল ১০টায় ঝিনাইদহ এর ইয়ূথ এক্টিভিষ্ট ফারুক হোসেন শাওন এবং অনিক এবং আমাদের সকলের অংশিদারিত্বে মেহেরপুর সরকারি কলেজে কর্মশালার মাধ্যমে একটি ইউনিট গঠন করা হয় এবং বিকেলে সকলে মিলে ফলোআপ সভা করা হয়। সভাতে আগামী দুই মাসের পরিকল্পনা সহ নিজের উন্নতির জন্য আগামী এক মাসের ব্যক্তিগত পরিকল্পনা করা হয।

গত ২০ অক্টোবর সাতক্ষীরার তালতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ‘প্রত্যাশা প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ শীর্ষক এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত কর্মশালায় ৮০ জন ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহণ করে। কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আক্তারুজ্জামান সেই সঙ্গে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন প্রভাষক মোঃ ফারুক হোসেন কর্মশালা শেষে সবার মতামতে আলতাফ হোসেন কে কো-অর্ডিনেটর এবং শরিফুল ইসলাম ও মোছাঃ রুমা খাতুন কে যুগ্ম কো-অর্ডিনেটর করা হয়। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন মোঃ মামুন হোসেন, মোছাঃ রেশমা খাতুন, শুভঙ্কর সরকার, অষ্টমী বৈরাগী, রনি আহমেদ বাবু, সাবিনা ইয়াসমীন, আরিফুল ইসলাম, শামীম হোসেন, রিমা রায়, অঞ্জলী মন্ডল, রুহুল আমিন, সুমা আক্তার। কর্মশালাটি সুন্দর ভাবে পরিচালনা করতে সাহায্য করেন ইয়ুথ লিডার মোঃ আব্দুস সালাম, শেখ রাজিব হাসান, রুমা, সাইফুল ইসলাম, আরিজুল, মিতা, রবিউল ও তৈয়ব।

গত ২৫ অক্টোবর সাতক্ষীরার বঙ্গবন্ধু পেশাভিত্তিক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ‘প্রত্যাশা প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ শীর্ষক এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় ৮৯ জন ছাত্র ছাত্রী অংশগ্রহণ করে। সর্বসম্মতিক্রমে সাধন কুমার মণ্ডলকে কো-অর্ডিনেটর ও নাসরিন নাহারকে যুগ্ম কো-অর্ডিনেটর করা হয়। কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন দেবব্রত (সদস্য, সাংগঠনিক), পলাশ সরকার (সদস্য, কোষাধ্যক্ষ), মাধবী সরকার (সদস্য, কর্মশালা), অমিত সরকার (সদস্য, প্রতিযোগিতা) ও রুবিনা পারভীন (সদস্য, পাঠচক্র)। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন রবিউল, অধীশ, সালাম, লতা, রুমা ও ইয়াছিন।

২৬ অক্টোবর কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুরের জয়পুর গ্রামস্থ জে,এম,জি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে একটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় স্কুলের এস.এস.সি ব্যাচের ছাত্র-ছাত্রী ছাড়াও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও স্কুল কমিটির সভাপতি জনাব মোঃ ইউনুস আলী উপস্থিত ছিলেন। রাজশাহী সিটি ইউনিটের সদস্য এবং ৪৪তম ব্যাচের ইয়ূথ লিডার ইউসুফের নেতৃত্বে কর্মশালাটি অনুষ্ঠিত হয়। তাকে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করেন মোঃ আনোয়ার হোসেন। কর্মশালা শেষে ছাত্র-ছাত্রীরা ১২ সদস্য বিশিষ্ট একটি ইউনিট গঠন করে। ৪১ জন ছাত্র-ছাত্রীর অংশগ্রহণের কর্মশালাটি উদ্বোধন করেন স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ ইউনুস আলী। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন ইয়ূথ লিডার মোঃ ইউসুফ আলী।

গত ২৭ অক্টোবর সাতক্ষীরা জেলার সেনের গাঁতি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে একটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত কর্মশালার ৪০ জন ছাত্রীর অংশগ্রহণে ১১ সদস্য বিশিষ্ট একটি ইউনিট গঠন করা হয়। শামীমা সুলতানা লতাকে কো-অর্ডিনেটর ও শামীমা ইয়াসমীনকে যুগ্ম কো-অর্ডিনেটরের দায়িত্ব দেওয়া হয়। এছাড়া বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল গফুরকে প্রধান উপদেষ্টা করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট উপদেষ্টা কমিটি ঘোষণা করা হয়। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন হেদায়েত হোসেন, মোঃ আব্দুস সালাম, অধীশ দাশ, আরিজুল ও রুমা। কর্মশালাটি পরিচালনায় সাহায্য করেন লতা, মিতা ও রবিউল।

গত ১ নভেম্বর নেত্রকোনা আঞ্জুমান আদর্শ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ে ‘প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ শীর্ষক কর্মশালার মাধ্যমে একটি ইউনিট গঠন করা হয়। কর্মশালায় ৯ম শ্রেণীর এ- শাখার ১০০ জন ছাত্র উপস্থিত ছিল। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন ইয়ূথ লিডার মোঃ শাহজাহান কবির ও মাহাবুব রহমান রৌদ্র। কর্মশালাটি আয়োজনে সার্বিক ভাবে সহযোগিতা করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

কটিয়াদী উপজেলা ইউনিটের উদ্যোগে ১ নভেম্বর আচমিতা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে ‘প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ শীর্ষক কর্মশালায় ৮ম ও ৯ম শ্রেণীর ৮৩ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। কর্মশালাটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জনাব সিরাজ উদ্দীন আহমদ। পরে সর্বসম্মতিক্রমে ১৩ সদস্য বিশিষ্ট কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন কটিয়াদী উপজেলার সুজন সেক্রেটারী ও উজ্জীবক কামরুল ইসলাম (মকুল), ইয়ূথ লিডার মোজাম্মেল হক, শফিকুল ইসলাম, হাকিকত, তানিয়া নাছরিন বর্ণালী। কর্মশালার আয়োজনে বিশেষভাবে ভূমিকা পালন করেন ভিটিআর হাবিবুর রহমান ও বিদ্যালয়ের শিক্ষকমণ্ডলীগণ।

কটিয়াদী উপজেলার আচমিতা ইউনিয়নের আচমিতা জর্জ ইন্সটিটিউশানে ৫৬ জন ছাত্র-ছাত্রীর অংশগ্রহণে গত ২ নভেম্বর ‘প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সহঃ প্রধান শিক্ষক। কর্মশালায় উপস্থিত প্রত্যেক অংশগ্রহণকরী নিজেদের মেধা বিকাশে ও সামাজিক উন্নয়নে দায়িত্ব নিয়ে কাজ করার অঙ্গীকার ঘোষণা করে। পরে ‘নক্ষত্র’ নামে ১৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি ইউনিট গঠন করা হয়। ইউনিটের সদস্যরা ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসে বিভিন্ন প্রতিযোগিতা আয়োজনের মধ্য দিয়ে কর্মসূচি শুরু করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন কটিয়াদী উপজেলার সুজন সেক্রেটারী ও উজ্জীবক কামরুল ইসলাম (মকুল), ইয়ুথ লিডার মোজাম্মেল হক, শফিকুল ইসলাম, হাকিকত, তানিয়া নাছরিন বর্ণালী।

গত ২-৩ নভেম্বর গোবিন্দগঞ্জ থানার হরিরাম পুর ইউনিয়নের ক্রোড়গাছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে স্থানীয় ক্লাবে পৃথক পৃথক দুইটি ‘প্রত্যাশা প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালার ক্রোড়গাছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪০ জন ছাত্রীর মধ্যে নিলুফা আক্তার সর্বসম্মতিক্রমে কো-অর্ডিনেটর নির্বাচিত হন। এছাড়া অন্য সদস্য হলো চম্পা জেসমিন, আনোয়ারা, পুতুল, জাকিয়া স্বর্ণালী, আফরোজা, কর্মশালার মাধ্যমে তারা এক মাসের একটা কর্মপরিকল্পনা হাতে নেয়। স্থানীয় ক্লাবে গ্রামের ছাত্র-ছাত্রীরা কর্মশালার মাধ্যমে সামাজিক ঋণ সম্পর্কে জানতে পারে, সমাজের এই ঋণ শোধ করার জন্য তারা এক মাসের একটা কর্মপরিকল্পনা হাতে নেয়। এতে অংশ নেয় সুলতান, মারুফা, তামজিদ, সাইফুল, আসাদ, সামজিদা, রাজ্জাক, রুবেল প্রমুখ। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন কারমাইকেল কলেজ ইউনিটের ইয়ূথ এক্টিভিষ্ট হাসানুর রহমান (হাসান)।

কটিয়াদি উপজেলার ঐতিহ্যবাহী উপজেলা ইউনিটের আয়োজনে ৩ নভেম্বর মধ্যপাড়া দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে ‘প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ শীর্ষক একটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। এতে ৮ম ও ৯ম শ্রেণীর মোট ১১০ জন ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহণ করেন। কর্মশালার উদ্বোধন করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন গণিতের সহকারী শিক্ষক জনাব আবু বক্কর ছিদ্দিক (খোকা)। প্রধান শিক্ষক এ কাজে নিজে যুক্ত থাকবেন বলে প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। ছাত্র-ছাত্রীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার জন্য কর্মশালার শেষ পর্যায়ে তাছলিমা আক্তারকে কো-অডিনেটর করে ১৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন কটিয়াদী উপজেলার সুজন সেক্রেটারী ও উজ্জীবক কামরুল ইসলাম (মুকুল), ইয়ুথ লিডার মোজাম্মেল হক, শফিকুল ইসলাম, হাকিকত, তানিয়া নাছরিন বর্ণালী। এ ইউনিটের নামকরণ করা হয় ‘জয়ন্তী’।

গত ৩ নভেম্বর, ২০০৮ নেত্রকোনা সরকারী কলেজে ‘প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় সম্মান শ্রেণীর ১ম বর্ষের হিসাববিজ্ঞান এবং ব্যবস্থাপনা ও ৩য়, ৪র্থ বর্ষের ৫০ জনের বেশী ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহণ করে। কর্মশালায় ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার সম্পর্কে এবং সামাজিক দায়বদ্ধতা সম্পর্কে আলোচনা করা হয়। কিভাবে একজন মানুয় সমাজের প্রতি দায়বদ্ধ এবং এ দায় থেকে মুক্তি পেতে পারে ও দেশের উন্নয়নে অবদান রাখতে পারে তা আলোচনা করা হয়। ছাত্র-ছাত্রীরা আদর্শ গ্রামের স্বপ্ন দেখে আদর্শ গ্রাম গড়ার প্রত্যাশা ব্যক্ত করে। সমাজ থেকে দায় মুক্ত হবার প্রত্যাশার সাথে সাথে ইয়ূথ সদস্যদের সাথে কাজ করার জন্য প্রত্যাশা করে। ব্যবস্থাপনা বিভাগের প্রধান জনাব মোঃ আব্দুল জলিল ইয়ূথের এই আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করেন। কর্মশালাটি পরিচালনা করে ইয়ূথ লিডার শাহজাহান কবির, রুদ্র, শিবলী, ফেরদোসী সুলতানা প্রমুখ।

‘আমি যদি আজকের এই কর্মশালায় উপস্থিত না থাকতাম তবে সমাজের কাছে, সমাজের মানুষের কাছে এবং রাষ্ট্রের কাছে যে আমি ঋণী তা কোনদিন জানতে পারতাম না’- কর্মশালা শেষে এভাবেই প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন বেগম রোকেয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী আরবিনা হোসেন। গত ৪ নভেম্বর, ২০০৮ রংপুর জেলার সদর উপজেলার বেগম রোকেয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ‘প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় বিদ্যালয়ের প্রায় ১০০ জন ছাত্রী অংশগ্রহণ করে। কর্মশালা শেষে মাহবুবাকে কো-অর্ডিনেটর করে ১৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি ইউনিট গঠন করা হয়। কর্মশালাটি পরিচালনা করে ইয়ূথ এক্টিভিস্ট রবিউল, রাতুল, হাসান এবং ইয়ূথ লিডার স্মৃতি, কেয়া, ও মুস্তাফিজ।

untitled-41

৪ নভেম্বর আব্দুর রহমান কলেজ ইউনিটের উদ্যোগে সাতক্ষীরা জেলার পাটকেলঘাটা থানার নগরঘাটা আদর্শ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে ‘প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিদ্যালয়ের ৯০ জন ছাত্রী অংশগ্রহণ করেন। কর্মশালায় আরো উপস্থিত ছিলেন প্রধান শিক্ষিকা সেজুতি পারভিন, সহকারি শিক্ষক পূর্ণ চন্দ্র সরকার। কর্মশালা শেষে অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে প্রধান শিক্ষিকা বলেন, একটি দেশের সবচেয়ে বড় হাতিয়ার হল ছাত্র-ছাত্রী। জাতি তাদের কাছে অনেক কিছু আশা করে। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন মোঃ আব্দুস সালাম। সহযোগিতা করেন মোঃ সাজিব হাসান, অধীশ, সাইফুল, রূমা, ঝর্ণা, আবিজুল, রবিউল, লতা ও তৈয়ব।

গত ৬ নভেম্বর, ২০০৮ সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটার থানার আমিরুননেছা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় ৪৫ জন ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহণ করে। কর্মশালা শেষে ঐ স্কুলের ছাত্র ছাত্রীদের নিয়ে একটি ইউনিট গঠন করা হয়। সবার সর্বসম্মতিক্রমে মোঃ আসলাম বিশ্বসকে কো-অর্ডিনেটর এবং মোছাঃ নাজমুন্নাহার ফারিয়াকে যুগ্ম কো-অর্ডিনেটর হিসাবে ১১ সদস্য বিশিষ্ট একটি ইউনিট গঠন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক জয়নুল আবেদীন এবং সহকারী শিক্ষক মোঃ মোজাফ্ফর হোসেন। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন পাটকেলঘাটা হারুন অর রশিদ কলেজ ইউনিটের, ইয়ূথ লিডার অধীশ দাশ, তৃষ্ণা সান্যাল, মোঃ আব্দুস সালাম ও আরিজুল। কর্মশালাটি সুষ্ঠুভাবে পরিচালনায় সাহায্য করেন অত্র বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক মোঃ বাবলুসহ ইয়ুথ এক্টিভিষ্ট অশোক বিশ্বাস ও হেদায়েত হোসেন।

গত ৯ নভেম্বর রাবেয়া আলী মহিলা ডিগ্রী কলেজ পূর্বধলা, নেত্রকোনায় ‘প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ শীর্ষক একটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালাটি আয়োজন ও পরিচালনা করেন ইয়ূথ লিডার মোঃ শাহজাহান কবির। ৪০ জন ছাত্রীর উপস্থিতিতে কর্মশালাটি সফলভাবে শেষ হবার পর একটি ইউনিট গঠন করা হয়। কর্মশালাটি আয়োজনে সার্বিক সহযোগিতা করেন প্রভাষক মোঃ আলী নূর লাবলু।

গত ১০ নভেম্বর সিংগাইর ডিগ্রী কলেজে অনুষ্ঠিত ‘প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ কর্মশালাটি পরিচালনা করেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ইউনিটের সদস্য জামিল, মারুফ ও শাহিন। কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন কলেজের বাংলা বিভাগের শিক্ষক জগদীশ চন্দ্র মালো। তিনি কর্মশালা শেষে তার অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন এই রকম ভালো উদ্যোগ ভালো মানুষ তৈরীর জন্য খুবই প্রয়োজন। ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গারকে এই রকম ভালো উদ্যোগ নেবার জন্য ধন্যবাদ জানান। সবশেষে মিজানুর রহমান সাঈদকে কো-অডিনেটর করে ইউনিট গঠন করা হয়। কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন সিলভি, মুক্তি, জসিম সহ আরো অনেকে। এই কর্মশালা আয়োজনে সার্বিক ভূমিকা পালন করেন উজ্জীবক উজ্জ্বল।

গত ১১ নভেম্বর নেত্রকোনা আঞ্জুমান আদর্শ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ে ‘প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ শীর্ষক একটি কর্মশালার মাধ্যমে ৯ম শ্রেণীর বি-শাখায় একটি ইউনিট গঠন করা হয়। ইউনিটটির নাম আঞ্জুমান আদর্শ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় বি ইউনিট। কর্মশালায় ৯৮ জন ছাত্র উপস্থিত ছিল। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন ইয়ূথ লিডার মোঃ শাহজাহান কবির ও মাহাবুব রহমান রৌদ্র। কর্মশালার মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধি পায়।

গত ১২ ই নভেম্বর ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলার সরাইল ডিগ্রী মহাবিদ্যলয়ে অনুষ্ঠিত ‘প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ শীর্ষক কর্মশালাটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন কলেজের অধ্যাপক জনাব বায়তুল হোসেন খন্দকার। এছাড়াও কয়েকজন সম্মানিত শিক্ষক কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন। এতে ২৮ জন ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহণ করেন। কর্মশালা শেষে সর্বসম্মতিক্রমে মোছা পান্না চৌধুরীকে কো-অর্ডিনেটর এবং শাহরিয়ার আলম মুবিনকে যুগ্ম কোঅর্ডিনেটর করে ১১ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়। কর্মশালাটি আয়োজনের ক্ষেত্রে সহযোগিতা করেন মোঃ ইলিয়াদ খাঁন, আব্দুস সালাম, জাহাঙ্গীর মিয়া, ইমরান প্রমুখ। উল্লেখ্য, অত্র ইউনিট গঠন ও কর্মশালার মাধ্যমে সরাইল উপজেলায় ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার- বাংলাদেশ এর কার্যক্রমের শুভ সূচনা ঘটে।

গত ১৫ ই নভেম্বর জামিরা বাজার আসতোমিয়া স্কুল এন্ড কলেজের হলরুমে সরকারী বি.এল. কলেজ ইউনিটের উদ্যোগে একটি কর্মশালা আয়োজন করা হয়। কর্মশালার সভাপতিত্ব করেন কলেজের অধ্যক্ষ গাজী মারুফুল কবির।

গত ১৬ নভেম্বর ময়মনসিংহের শম্ভুগঞ্জ জিকেপি কলেজে অনুষ্ঠিত ‘প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ শীর্ষক কর্মশালায় কলেজের একাদশ শ্রেণীর প্রায় ১০০ জন ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহণ করে। কর্মশালা শেষে শম্ভুগঞ্জ জিকেপ কলেজ নামে একটি ইউনিট গঠন করা হয়। প্রতিভা ইউনিটের আয়োজনে কর্মশালাটি পরিচালনা করেন ইয়ূথ এক্টিভিস্ট এ কে মানিক। তাকে সহযোগিতা করেন মতিউর, রনি, রিংকু।

১৮ ই নভেম্বর বেগম বদরুন্নেছা সরকারি মহিলা কলেজের উদ্যোগে হায়াত বক্স উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ‘প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। এতে কলেজের ৪০ জন ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহণ করেন। কর্মশালা শেষে শাহানাজ আক্তারকে কো-অর্ডিনেটর ও মোঃ সোহেলকে যুগ্ম কো-অর্ডিনেটর করে একটি কমিটি গঠন করা হয়। কর্মশালায় আরো উপস্থিত ছিলেন প্রধান শিক্ষক মোঃ মনসুর আলী, সহকারী শিক্ষক রবীন্দ্রনাথ বিশ্বাস ও অন্যান্য শিক্ষক মন্ডলী। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইয়ূথ লিডার জয়, ফয়জুল ও ওবায়দুল। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন ইয়ূথ লিডার লিপি আক্তার, মীম ও স্নিগ্ধা।

গত ২১ নভেম্বর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইয়ূথ একটিভিস্ট জামিল, ইয়ূথ লিডার মামুন এবঙ শাহীনের পরিচালনায় সাভার রেডিও কলোনী সরকারী বিদ্যালয়ে একটি (VCAW) কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় ফরমান উল্লাহকে কো-অর্ডিনেটর নির্বাচন করে একটি ইউনিট গঠন করা হয়। নবগঠিত ইউনিটের নামকরণ করা হয়- সাভার দিগন্ত ইউনিট।

এদিকে মানিকগঞ্জে সরকারী দেবেন্দ্র কলেজে গত ২৭ নভেম্বর একটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালা শেষে একটি নতুন ইউনিট গঠন করা হয়। একই দিনে জয়পুরা, ধামরাই এ ২৮ জন অংশগ্রহণকারীদের নিয়ে একটি কর্মশালা ও তার মধ্য দিয়ে নতুন দু’টি ইউনিট গঠন করা হয়।

untitled-6

দারিয়াপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ছাত্র-ছাত্রী এবং শিক্ষকদের আগ্রহে একটি কর্মশালা করানো হয় এবং এর মাধ্যমে একটি নতুন ইউনিট গঠন করা হয়। ছাত্র-ছাত্রী এবং শিক্ষকদের প্রাণবন্ত আলোচনার মাধ্যমে খুব সুন্দরভাবে এই কর্মশালা করা হয়। আমার সাথে সহযোগিতা করে ইয়ূথ লিডার নাঈমা, আলিকুল, নাছিম, মামুন, শাকিল এবং ইউনিট গঠনের সময় সকলের সম্মতিক্রমে দারিয়াপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় ইউনিট, মুজিবনগর, মেহেরপুরের কো-অর্ডিনেটর হয় শাহরিয়ার হেসেন অনিক এবং যুগ্ম কো-অর্ডিনেটর জেসমিন খাতুন।

রিপোর্ট: শাহজাহান কবীর, নাছিম হায়দার, রাইসুল ইসলাম অনিক, মোঃ ইউসুফ আলী, রাতুল, ফাহিম আবেদীন, তানভীর রুবেল, লিপি আক্তার, মোঃ আব্দুস সালাম, মোঃ শামীম খাঁন, অধীশ দাশ, তৃষ্ণা, এস এম সুলতান, মোজাম্মেল হক, কামরুল ইসলাম মুকুল, রবিউল, মোঃ আব্দুর রাশিদ, এ.কে. মানিক, হাবিবুর রহমান, তানিয়া নাছরিন বর্ণালী ও জামিল আক্তার।

আমরা করব জয়-৬৫

Advertisements

One comment

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়েছে।