নতুন কমিটি গঠন

‘আত্মশক্তিতে বলীয়ান মোরা, নিবেদিত প্রাণ’- এই বিশ্বাসে উজ্জীবিত হয়ে একবুক স্বপ্ন আর সাহস নিয়ে আজ থেকে ছয় বছর আগে একঝাঁক স্বপ্নবান তরুণের অক্লান্ত পরিশ্রম ও ঐকান্তিক প্রচেষ্টা, সিনিয়র সদস্যদের অনুপ্রেরণা ও উপদেষ্টাদের সুনিপুণ দিকনির্দেশনায় আত্মপ্রকাশ ঘটে ঝিনাইদহ সদর ইউনিটের, শুরু হয় প্রত্যয়দীপ্ত পথচলা। সূচনালগ্ন থেকেই ইউনিটের প্রতিটি সদস্য আত্মবিশ্বাসী, সৃজনশীল ও কর্মোদ্যমী। তারা বিশ্বাস করে সম্মিলিত উদ্যোগ, সুনির্দিষ্ট কর্মপরিকল্পনা ও তার সঠিক বাস্তবায়নের মধ্য দিয়েই নিজেদের বিকাশ ও সার্বিক উন্নয়ন সম্ভব। আর তাই মেধা, সততা ও সৃজনশীলতা বিকাশের পাশাপাশি নানাবিধ সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে অংশ নেয়া ও অসংখ্য ইতিবাচক দৃষ্টান্ত স্থাপনের ফলে সংগঠনটি ঝিনাইদহবাসীর আস্থা ও ভালোবাসার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে। সকলেই বিশ্বাস করে পরস্পরের প্রতি শ্রদ্ধা আর ভালোবাসাই ইয়ূথ সদস্যদের কাজের মূল রসদ। মানুষের প্রতি সহমর্মিতা, সমাজের প্রতি দায়বদ্ধতা ও নিঃশর্ত দেশপ্রেমই ইউনিট সদস্যদের এগিয়ে চলার পাথেয়…।

‘আলোকিত জীবনের সন্ধানে গাহি, তারুণ্যের জয়গান’- এই বিশ্বাসকে ধারণ করে গত ২৫ এপ্রিল বিকাল ৪টায় সরকারী কে.সি. কলেজ ক্যাম্পাসে ঝিনাইদহ সদর ইউনিটের বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় গত মাসের গৃহীত কর্মসূচির অগ্রগতি ও পর্যালোচনা, অভিজ্ঞতা বিনিময়, জাতীয় সভার সিদ্ধান্তসমূহ উপস্থাপন, আগামী মাসের কর্মসূচি নির্ধারণ ছাড়াও কার্যনির্বাহি কমিটি নবায়ন করে নতুন কমিটি গঠন করা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন ইউনিট উপদেষ্টা শরীফ মাহমুদুল হাসান। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে মোঃ ফারুক হোসেন শাওনকে কো-অর্ডিনেটর ও নাসরিন সুলতানাকে যুগ্ম কোঅর্ডিনেটর করে ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কার্যনির্বাহি কমিটি ও ৫ সদস্য বিশিষ্ট উপদেষ্টা কমিটি গঠন করা হয়। সভাটি সার্বিকভাবে পরিচালনা করেন ইয়ূথ এক্টিভিস্ট অশোক বিশ্বাস।

ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার প্রতিভা ইউনিটের নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে। আনন্দমোহন কলেজের সম্মান ১ম বর্ষের ছাত্র আবু ফারুক খোকনকে কোঅর্ডিনেটর নির্বাচন করা হয়। নতুন কমিটি তাদের প্রথম কার্যক্রম হিসাবে স্বাক্ষরতা কর্মসূচিকে বেছে নেয়। ইউনিটের অন্যান্য সদস্যরা হলো – মাসুম, মতিউর, এরশাদ, রুমান, রাশিদ, কাজল, ত্বকি, আনোয়ার, বাবুল, রুবেল, আনোয়ার, আনোয়ারুল ও পারভেজ।

২৭ মে নোয়াখালী সোনাপুর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ প্রাঙ্গনে তাবাসসুম মিলিকে কোঅর্ডিনেটর করে সোনাপুর ইউনিট পুনর্গঠন করা হয়। এতে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক কাদের চৌধুরী ও জনাব মোঃ গোলাম মোস্তফা। উপস্থিত অভিভাবকদের মধ্য থেকে অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে নওরিন জাহান বলেন, “ফসলের বীজ ভালো মানের হলে ক্ষেতের ফসল ভালো হয়। আমি মনে করি তোমরা আমাদের সেই ভালো বীজ, যাদের দিয়ে আমরা একটি সুন্দর আত্মনির্ভরশীল জাতি গড়তে পারব।”

নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টির লক্ষ্যে গৌরীপুর ইউনিটের আয়োজনে ৩০ মে সিংজানী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ৪০ জন ইয়ূথ লিডার ও ইয়ূথ সদস্য উপস্থিত ছিলেন। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সূবর্ণ বাংলা পত্রিকার সম্পাদক আজম জহিরুল ইসলাম, ডেসটিনি বন্ধুজনের সম্পাদক ফারুক আহমেদ, গ্রামীণ ব্যাংক কর্মকর্তা বরুণ চন্দ্র দাস, নয়ন কুমার দাস ও প্রাণেশ পন্ডিত। সভায় বক্তব্য রাখেন বিদায়ী কোঅর্ডিনেটর মোঃ আব্দুর রাশিদ। হুমায়ুন কবীরকে নতুন কোঅর্ডিনেটর নির্বাচিত করে কমিটি গঠনের মধ্য দিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

রিপোর্ট: এ.কে মানিক, মোঃ জাহিদুল ইসলাম সজল ও আব্দুর রাশিদ।

আমরা করব জয়, ৬৩তম সংখ্যা

Advertisements

About John Coonrod

Executive Vice President, The Hunger Project
This entry was posted in অন্যান্য, কার্যক্রম. Bookmark the permalink.

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s