পুর্নমিলন

২ এপ্রিল কুষ্টিয়ার ইয়ূথ সদস্যদের জন্য একটি অন্যরকম আনন্দঘন দিন ছিল। ইয়ূথ সদস্য, ইউনিট উপদেষ্টা, অভিভাবক ও শুভান্যুধায়ীরা একত্রিত হয়েছিল পুর্নমিলনী অনুষ্ঠানে। সকাল ৯টা বাজার সাথে সাথেই স্বেচ্ছাব্রতী ইয়ূথ সদস্যদের পদভারে মুখরিত হয়ে ওঠে রেনউইক বাঁধ চত্ত্বরটি। বর্ণিল সাজে সজ্জিত হয়ে উপস্থিত হন আমন্ত্রিত অতিথিরা। বন্ধুত্বের পরশে একে অপরকে আবদ্ধ করতে ও নতুন সেতুবন্ধন তৈরিতে ব্যস্ত সবাই। অন্যদিকে প্রীতিভোজের জন্য ভুনা খিচুরী আর মুরগীর মাংস রান্নায় ব্যস্ত সময় কাটায় ইয়ূথ সদস্য নিজেরাই। হৈ-হুল্লোর আর গল্পের ফাঁকে ফাঁকে কুইজ ও বিতর্ক প্রতিযোগিতা, গান, কবিতা, আর নাচে মুখরিত হয়ে ওঠে সকলে। নৃত্য পরিবেশন করেন সোহাগ ও সকলের প্রাণবন্ত হাসির খোরাক যোগায় ফারুক। জমজমাট বিতর্ক প্রতিযোগিতায় বিষয় ছিল ‘নারীর আত্মপ্রতিষ্ঠায় নারীকেই ভূমিকা রাখতে হবে।’ দেখতে দেখতে ঘড়ির কাটা তখন সন্ধ্যা ৬টা ছুঁই ছুঁই, সময় যে কখন পেরিয়ে গেছে! সারাদিনের কার্যক্রম শেষে আগামী দিনের কর্মসূচি হাতে নিয়ে এই সুন্দর আনন্দঘন মিলনমেলাকে বিদায় জানায় কুষ্টিয়া জেলা ইউনিটের কোঅর্ডিনেটর মাহিন ইসলাম। বিদায়ের আগে সকলের কন্ঠে ধ্বণিত হয় একই সুর-‘যত দ্রুত সম্ভব কেটে যাক কালো মেঘ, হাসুক নতুন সূর্য, বসন্তের হাওয়া লাগুক সবার প্রাণে…..”।

রিপোর্ট: অশোক বিশ্বাস
আমরা করব জয়, ৬৩তম সংখ্যা

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s