বাংলাদেশের ছেলে-মেয়েরা সবচেয়ে মেধাবী – ড. কামাল হোসেন

special-issue-4415

আমি মনে করি, তথাকথিত বিশেষজ্ঞদের চেয়ে অধিক মূল্যবান তোমাদের কথা ৷ কারণ, তোমরা এ কথাগুলো বলছো তোমাদের অভিজ্ঞতার আলোকে ৷ তোমরা তোমাদের আলোচনায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মান, শিক্ষকদের দায়িত্ব, নিজেদের দায়িত্ব, শিক্ষা ব্যবস্থা প্রতিটি বিষয় সম্পর্কে সুস্পষ্ট মতামত দিয়েছো ৷ আমি এ কথাগুলো থেকে আশার আলো দেখি ৷

আমার নিজের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং দেশের বাইরেও শিক্ষকতা করার সুযোগ হয়েছে ৷ আমি সব জায়গায় গর্বের সাথে দাবি করেছি, সৃষ্টি কর্তা অনেক দেশকে অনেক কিছু দিয়েছে, কিন্তু বাংলাদেশকে মানব সম্পদ এবং মেধাবী ছেলে-মেয়ে দিয়েছে ৷ আমি দেখেছি বাংলাদেশের গ্রামের, কি শহরের সব জায়গার ছেলে-মেয়েরা মেধাবী ৷ আমি ইউরোপ এবং আমেরিকায় বহুবার বলেছি তোমরা যদি সব অঞ্চল থেকে ছেলে-মেয়েদের একত্র করো দেখবে বাংলাদেশের ছেলে-মেয়েরা কত মেধাবী ৷

এটা হলো আমাদের বৈশিষ্ট্য ৷ আমাদের দূর্ভাগ্য এসকল খবরগুলো মিডিয়াগুলো বিশেষত: ইলেকট্রনিক মিডিয়া কাভারেজ দেয় না ৷ আমি এ ব্যাপারে কিছু করা যায় কি-না দেখবো ৷ তবে আমি জানি না, সফল হবো কি-না ৷ আমার বিশ্বাস, এখান থেকেই তোমাদের অনেক নেতা হবে ৷ কাজেই তোমাদের ভাল কাজগুলো প্রচার হওয়া প্রয়োজন ৷

আমি অন্তর থেকে চাই আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থার সার্বিক উন্নতি হোক ৷ আমাকে যদি কেউ দেশের উন্নয়নের প্রথম শর্তের কথা বলে তাহলে আমি বলবো তোমার দেশের মানব সম্পদের যে মেধা রয়েছে তার মানোন্নয়ন ৷ আন্তর্জাতিক শিক্ষার সাথে মিলিয়ে আত্মবিকাশের পুরো সুযোগ দেওয়া ৷ এটাই আজকে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ৷

তোমরা আমাকে বলেছো কালকে আরো অনেকে আসবে ৷ আমি চেষ্টা করবো কালকেও আসতে ৷ তবে আমার একটা শর্ত আমি বক্তৃতা দিতে আসব না ৷ আমি আসব তোমাদের কথা শুনতে এবং অভিজ্ঞতা অর্জন করতে ৷ আশাকরি আমার সে সুযোগ মিলবে ৷ গণ্যমান্য ব্যক্তিদের কথা রেডিও টিভিতে অনেক শোনা যায়, কিন্তু আসল কথা শোনা হয় না ৷ তোমাদের আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়ে শেষ করছি ৷

আমরা করব জয়-৪৪

Advertisements

One comment

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়েছে।