নবম জাতীয় সম্মেলনে বসেছিল তারুণ্যের মিলনমেলা

special-issue-441

তারুণ্যের মিলনমেলা বসেছিল গত ৩০ ও ৩১ ডিসেম্বর ৷ মেলা বসেছিল সাভারের গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে ৷ উপলক্ষ ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গারের নবম জাতীয় সম্মেলন ৷ মিলনমেলায় যোগ দিয়েছিল পাঁচ শতাধিক তরুণ-তরুণী ৷ তারা এসেছিল ৪৫টি জেলার ২১০টি ইউনিট থেকে ৷ ইউনিটগুলি বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় ও ইউনিয়ন পর্যায়ে অবস্থিত ৷

special-issue-4443

special-issue-4423

special-issue-4436

তরুণদের এ মিলনমেলায় একদল প্রবীণও যোগ দিয়েছিলেন ৷ প্রথম দিনে যোগ দিয়েছিলেন বিশিষ্ট আইনবিদ ড. কামাল হোসেন, শিক্ষা আন্দোলন মঞ্চের আহ্বায়ক অধ্যাপক অজয় রায়, রিসার্চ ইনিসিয়েটিভস বাংলাদেশ এর পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ও জাতিসংঘের সাবেক কর্মকর্তা মনোয়ারুল ইসলাম ৷

special-issue-446special-issue-445

ড. কামাল বলেন ‘তরুণদের এত সফলতা, অথচ মিডিয়াতে এর প্রচার নেই ৷ এসকল সফলতা প্রচার হওয়া জরুরী ৷ এটা ঘটলে যারা হতাশ, যারা হতাশা ছড়ান, তারা ইতিবাচক হতে বাধ্য হবেন ৷ আমি ব্যক্তিগতভাবে এ ব্যাপারে উদ্যোগী হবো ৷’

special-issue-447

অধ্যাপক অজয় রায় বলেন ‘আমি শিক্ষা নিয়ে কাজ করি ৷ এ কাজে অন্যকে সম্পৃক্ত করি ৷ কিন্তু ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গারের সদস্যরা শিক্ষার মানোন্নয়নে তৃণমূল পর্যায়ে যেভাবে কাজ করছে তা আমাকে অভিভূত করেছে ৷ আমি ক্ষমতায়িত হয়েছি ৷ আমি ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গারের সদস্যদের শিক্ষা আন্দোলন মঞ্চের সাথে যৌথভাবে কাজ করার আহ্বান করছি ৷ আমি নিশ্চিত এটা হলে শিক্ষার মানোন্নয়নে একটি বিরাট ইতিবাচক পরিবর্তন আসবে ৷’

special-issue-4410

special-issue-448

special-issue-449

মনোয়ারুল ইসলাম বলেন ‘ছাত্র-ছাত্রীরা স্বেচ্ছায় অংশগ্রহণমূলক কর্ম গবেষণা করছে এটা বাংলাদেশে নতুন ৷ আমি এতক্ষণ যে অভিজ্ঞতার কথা শুনলাম তা সত্যিই অনন্য ৷ রিসার্চ ইনিসিয়েটিভস বাংলাদেশ এই নতুন শক্তির পাশে থাকবে ৷’

দ্বিতীয় দিনে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক মোজাফফর আহমদ, অধ্যাপক ও কথা সাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক, অর্থনীতিবিদ ড. আতিউর রহমান, বিশিষ্ট কবি আবু হাসান শাহরিয়ার, বাংলাদেশ টেলিভিশনের সাবেক বার্তা সম্পাদক রফিকুল ইসলাম সরকার, দি হাঙ্গার প্রজেক্টের গ্লোবাল ভাইস প্রেসিডেন্ট ড. বদিউল আলম মজুমদার ৷


special-issue-4411

special-issue-4412

মোজাফফর আহমদ বলেন ‘পরপর আমি তিন বছর তোমাদের এ সম্মেলন দেখলাম ৷ গুণগতভাবে অনেক পরিবর্তন এসেছে তোমাদের কাজে ও চিন্তায় ৷ তোমরা অনেক দিবস পালন করছ ৷ এটা ভালো ৷ তবে পরিবেশ-পরিচ্ছন্নতা নিয়ে একটি দিবস পালন করা যেতে পারে ৷ তোমরা এ নিয়ে ২০০৫ সালে কাজ করতে পার ৷ এ জন্যে তোমরা কাজ করার মধ্য দিয়ে একটি প্রেসার গ্রুপ হিসেবে নিজেদের তৈরী করতে পার ৷’

হাসান আজিজুল হক বলেন ‘আমি চারিদিকে হতাশা দেখি ৷ কিন্তু তরুণদের দেখলে আমার হতাশা কেটে যায় ৷ তাই বলে সকল তরুণদের দেখলে আমার হতাশা কাটে না ৷ তোমাদের কাজের চিত্র ও অভিজ্ঞতা শুনে আমার মনে হয়েছে তোমরা অন্যদের থেকে আলাদা ৷ তোমাদের দায়িত্ববোধ অনেক ৷ শুধু আত্মশক্তির কথা বললে হবে না ৷ নিজের শক্তি দিয়ে অন্য অনেককে অনুপ্রাণিত করতে হবে ৷ তবেই সফল হবে ৷ আমি বিশ্বাস করি তোমরা তা পারবে ৷’

ড. আতিউর রহমান বলেন, তোমাদের অনেক সফলতার কথা শুনলাম ৷ এটা সচরাচর শোনা যায় না ৷ কিন্ত এতটুকুতেই
সন্তুষ্ট হলে চলবে না ৷ তোমাদের আরো গভীরে যেতে হবে ৷ অনুসন্ধান করতে হবে ৷ আসল সমস্যা কোথায়, তা তোমাদেরকেই খূঁজে বের করতে হবে এবং সঠিক কার্যক্রম নির্ধারণ করতে হবে ৷’

কবি আবু হাসান শাহরিয়ার বলেন ‘তোমরা সকলেই মানুষ, কেবল হিন্দু কিংবা মুসলমান নয় ৷ মানুষ হিসেবে তোমাদের সামাজিক দায়বদ্ধতা অনেক ৷ এতক্ষণ তোমাদের অভিজ্ঞতা শুনে আমার এটাই মনে হয়েছে যে, সে সামাজিক দায়বদ্ধতার ভিত্তিতে তোমরা নতুন সম্ভাবনার দ্বার খুলতে সক্ষম হচ্ছো ৷

রফিকুল ইসলাম সরকার বলেন ‘এ সম্মেলনে যে সকল ছাত্র-ছাত্রীরা অংশগ্রহণ করেছে, তারা অন্য অনেকের থেকে ব্যতিক্রম ৷ ব্যতিক্রম তারা চিন্তায়, অভ্যাসে ও মানসিকতায় ৷’

ড. বদিউল আলম মজুমদার বলেন ‘একটি নতুন বাংলাদেশ গড়তে হলে দরকার নতুন নেতৃত্ব ৷ তোমাদের মধ্যে থেকেই সে নেতৃত্ব সৃষ্টি হবে ৷ তোমরাই সে নেতৃত্ব সৃষ্টি করবে ৷ সারাদেশে হাজার হাজার উজ্জীবকও একই লক্ষ্যে নেতৃত্ব দিচ্ছে ৷’

সম্মেলনের উদ্দেশ্য ছিলো একাধিক ৷ ক) ক্ষুধামুক্ত বাংলাদেশ গঠনে সারাদেশে দি হাঙ্গার প্রজেক্টের নেতৃত্বে যে গণজাগরণ শুরু হয়েছে, সে গণজাগরণে ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গারের সদস্যদের অবদান ও অগ্রগতি পর্যালোচনা করা; খ) গণজাগরণে স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে সদস্যরা এ বছর (২০০৪) যে সকল দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করেছে তাঁর অভিজ্ঞতা ও বিভিন্ন শিক্ষণীয় দিক বিনিময়ের মাধ্যমে সকলকে অনুপ্রাণিত করা; গ) গণজাগরণে সদস্যরা যে সকল সফলতা অর্জন করতে পারে নি, তার কারণ অনুসন্ধান ও বিশ্লেষণ করা; এবং ঘ) আগামী ২০০৫ সালের জন্য একটি সমন্বিত প্রত্যাশা নির্ধারণ করা ৷

সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় নবম জাতীয় সম্মেলন কমিটির নেতৃত্বে ৷ নবম সম্মেলন কমিটির কনভেনর ছিল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ইউনিটের সদস্য তহুরুল হাসান টুটুল ৷ অংশগ্রহণকারী নির্বাচন, অতিথি নির্বাচন, সম্মেলনের এজেন্ডা প্রভৃতি কাজ এই কমিটি সম্পন্ন করে ৷ কমিটিকে সহযোগিতা করে ন্যাশনাল ইয়ূথ ফোরাম ৷ সম্মেলনে ২২ সদস্য বিশিষ্ট দশম জাতীয় সম্মেলন কমিটি ঘোষণা করা হয় ৷ দশম সম্মেলনের কনভেনর নির্বাচিত হয় সিলেটের আবদুল আলিম শাহ ৷

ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গারের প্রতিটি সদস্য বিশ্বাস করে ‘আত্মশক্তিতে বলীয়ান ব্যক্তি কখনও দরিদ্র থাকতে পারে না’ ৷ এ বিশ্বাসের আলোকে সম্মেলনে প্রতিটি অংশগ্রহণকারী নিজের যাতায়াত ব্যয় নিজেই বহন করে ৷ শুধু তাই নয়, এবারের সম্মেলনে অন্যান্য ব্যয় বহনে অংশগ্রহণের জন্যে ৪০ টাকা করে রেজিস্ট্রেশন ফিও প্রদান করে ৷

সম্মেলনের প্রথম দিনে উদ্বোধনী পর্বের পর ২০০৪ সালের অগ্রগতি পর্যালোচনা করা হয় ৷ পর্যালোচনার পর ভিডিও প্রদর্শন করা হয় ৷ ভিডিওতে ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গারের কার্যক্রম তুলে ধরা হয় ৷ দুপুরেরর পর গবেষকরা ‘অংশগ্রহণমূলক কর্ম-গবেষণা’ ও ইয়ূথ একটিভিস্টরা প্রশিক্ষণ পরিচালনার অভিজ্ঞতা বিনিময় করে ৷ এরপর তহুরুল হাসান টুটুলের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয় উপস্থিত বক্তৃতা প্রতিযোগিতা ৷ দ্বিতীয় দিনের শুরুতেই অনুষ্ঠিত হয় জাতীয় কুইজ প্রতিযোগিতা ৷ এতে ছয়টি বিভাগের ১৮ জন সদস্য অংশগ্রহণ করে ৷ এরপর আবার শুরু হয় ভিডিও ও অভিজ্ঞতা বিনিময় ৷ দুপুরের পর ‘বর্তমান বাস্তবতায় শিক্ষা অধিকার নয়, সুযোগ’ শীর্ষক জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয় ৷ এটি পরিচালনা করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ও ইয়ূথ লীডার মাজেদুল ইসলাম মাজেদ ৷ এরপর অনুঘটকসুলভ উদ্যোগের অভিজ্ঞতা বিনিময় করা হয় ৷ এছাড়াও দু’দিনের বিভিন্ন সময় একাধিক বিষয়ে ছোট ছোট ইভেন্ট অনুষ্ঠিত হয় ৷

আমরা করব জয়-৪৪

Advertisements

One comment

  1. […] <!– /* Font Definitions */ @font-face {font-family:Vrinda; panose-1:1 1 6 0 1 1 1 1 1 1; mso-font-charset:0; mso-generic-font-family:auto; mso-font-pitch:variable; mso-font-signature:65539 0 0 0 1 0;} @font-face {font-family:SolaimanLipi; panose-1:2 0 5 0 2 0 0 2 0 4; mso-font-charset:0; mso-generic-font-family:auto; mso-font-pitch:variable; mso-font-signature:-2147385341 0 0 0 1 0;} /* Style Definitions */ p.MsoNormal, li.MsoNormal, div.MsoNormal {mso-style-parent:””; margin:0in; margin-bottom:.0001pt; mso-pagination:widow-orphan; font-size:12.0pt; font-family:”Times New Roman”; mso-fareast-font-family:”Times New Roman”; mso-bidi-font-family:Vrinda;} @page Section1 {size:8.5in 11.0in; margin:1.0in 1.25in 1.0in 1.25in; mso-header-margin:.5in; mso-footer-margin:.5in; mso-paper-source:0;} div.Section1 {page:Section1;} –> নবম জাতীয় সম্মেলনে বসেছিল তারুণ্যের

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়েছে।