জানার ক্ষুধা বাড়াতে হবে – অধ্যাপক মোজাফফর আহমদ

special-issue-44131

অনেক নতুন নতুন অর্জন হয়েছে তোমাদের ৷ এতক্ষণ সে সকল অভিজ্ঞতার বর্ণনাই শুনলাম ৷ তোমাদের বিভিন্ন দিবস উদযাপনের তথ্যচিত্রও দেখলাম ৷ সেই বিষয়েই দু’একটা কথা তোমাদের বলতে চাই ৷ আমি একটা বিষয়ে তোমাদের চিন্তা করতে বলবো ৷ এই সকল বিষয়ের ভিড়ে স্থানীয় কোন বিষয়কে তোমরা বিশেষ দিবস হিসেবে নিয়ে আসতে পার কি-না ৷

যেমন, তোমাদের পাড়ার আশে পাশে অনেক পুকুর ডোবা আছে ৷ হয়ত তার অনেকগুলোই কচুরীপানায় পরিপূর্ণ ৷ তোমরা একটা নির্দিষ্ট দিন পাড়ার সকলে মিলে ব্যয় করতে পার সেগুলো পরিস্কার করার কাজে ৷ এটাকে ‘আঞ্চলিক পরিচ্ছন্ন’ দিবস হিসেবেও উল্লেখ করতে পার ৷ আমাদের মূল হলো আমাদের মাটি ৷ সুতরাং জীবন, ভবিষ্যতকে মাটির সাথে সম্পৃক্ত করো ৷ কেবল তাহলেই দিবস পালন আরো অর্থবহ হতে পারে ৷

শিক্ষার কথা এসেছে ৷ শিক্ষার একটি আয়োজনে আমি গিয়েছিলাম ময়মনসিংহ ৷ আমার কাছে খুব ভাল লেগেছিল যে স্থানীয় উদ্যোগে স্থানীয় ছাত্র-ছাত্রীরা নিজেদের মেধার বিকাশ ঘটানোর চেষ্টা করছে ৷ সেটার একটা সংগঠিত প্রচেষ্টা এখানে পরিস্ফুট হয়েছে ৷ কিন্তু এই যে গাইড বই বা নোট বই, এর বিরুদ্ধে বিদ্রোহটাকে আরো বিস্তৃত করা প্রয়োজন ৷ খোঁজ নিয়ে দেখা দরকার এই মেধার আন্দোলনে যারা যুক্ত তাদের কতজন কোচিং সেন্টারের ছাত্র ৷ এই কোচিং সেন্টারগুলো বন্ধ হওয়া প্রয়োজন ৷ আমি স্কুলের কাছ থেকেই বিদ্যার্জনের অধিকার আদায় করতে চাই ৷ যে শিক্ষা আমাকে আলোকিত এবং উন্নত করবে সেই শিক্ষা আমার চাই ৷ এ ধারণার উপর দাঁড়িয়ে আমাদের শিক্ষা আন্দোলন চালিয়ে নিতে হবে ৷ সুতরাং যেটা শুরু হয়েছে তা মূল্যবান ৷

তোমাদের মধ্যে অনেকেই আছ যারা ভাল ছাত্র ৷ আবার অনেকে আছ যারা উপরে বা নীচের ক্লাসে পড় ৷ অনেক সময় দেখা যায়, তোমাদের যে বিস্তৃত বিষয়গুলো পড়তে হয়, তা থেকে অনেকেই পিছিয়ে পড়ে ৷ ইংরেজীতে স্বাক্ষরতা আন্দোলন নিয়ে এক সময় কথা উঠেছিল, “ইচ ওয়ান টিচ ওয়ান” ৷ যে কথাটা শুধুমাত্র স্বাক্ষরতার কাছেই থেমে আছে ৷ কিন্তু টিচিং লার্নিং এর আলাদা একটা অর্থ আছে ৷ দু:খজনক হলেও সত্য আমাদের দেশে এনজিওদের শিক্ষাদানের প্রণালীতে তা রুদ্ধ হয়ে গেছে ৷

এর অর্থ হলো ‘পরস্পরের কাছ থেকে যে পিছিয়ে আছে তাকে তোমার সাথে সম্পৃক্ত করে তোমার পর্যায়ে নিয়ে আসা’ ৷ কেবল তাহলেই এ প্রচেষ্টা আরো অনেক বেশি প্রসারিত হবে ৷ সুতরাং তোমরা শিক্ষা আন্দোলনের সময় ঐ দিকটা লক্ষ্য রেখো ৷ আমি কিছুটা শুনেছি যে, আব্দুল্লাহ আবু সাঈদ এর যে আলোকিত মানুষ চাই তার সাথে ময়মনসিংহ এবং গৌরীপুর ইউনিটের সদস্যরা সম্পৃক্ত হওয়ার চেষ্টা করছে ৷

special-issue-4414

আমি সেদিন খবরের কাগজে দেখলাম যশোরের একটি ছেলের লাইব্রেরী করার খবর ৷ ছেলেটি একটি লাইব্রেরী করে সাধারণ মানুষদের পড়ানোর চেষ্টা করছে ৷ খবরটি প্রকাশিত হওয়ার পড় ঢাকা থেকে একটি সংগঠন তাকে কিছু বই দিয়ে এসেছে ৷ আমরা অনেক সময় অনেক বই ফেলে দিই ৷ তোমরা সেগুলো সংগ্রহ করতে পারো ৷ সংগৃহীত বই থেকে কাউকে ধার দিতে পারো ৷ এভাবে প্রয়োজনে আমরা একজন আর একজনকে সমৃদ্ধ করতে পারি ৷

আমাদের দূর্ভাগ্য যে, আমাদের দেশে ভাল বই খুব একটা প্রকাশিত হয় না ৷ তোমরা কতজন পশ্চিমবঙ্গ এবং আমাদের দেশে যে জীবনী গ্রন্থমালা বেড়িয়েছে সেগুলো পড়? আমাদের দেশে যারা স্মরণীয় বরণীয় তাদের কথা কতটুকু জান? এক সময় বাংলা একাডেমী থেকে একশত একটি বইয়ের একটি তালিকা বেরিয়েছিল, তার কতটুকু জান? জ্ঞান-বিজ্ঞানের বিভিন্ন বিষয় তাতে অত্যন্ত সহজ সরল ভাষায় তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছিল ৷ আমি জানি, তোমরা অনেকেই হুমায়ূন আহমেদ পড়, জাফর ইকবাল পড়, কিন্তু ঐ সকল বই তোমাকে আরো অনেক অনেক বেশি সমৃদ্ধ করবে ৷ অনেক বেশি নতুন জ্ঞানের সাথে পরিচিত করবে ৷ সুতরাং শিক্ষার ধারা, জানার ধারা এগুলোকে তোমাদের পরিবর্তন করতে হবে ৷

তোমাদের কাছে আমার একটা প্রশ্ন আছে ৷ “আত্মশক্তিতে বলিয়ান” – এ কথাটার মানে তোমরা কতজন বোঝ? আত্মশক্তিতে বলিয়ান হতে গেলে প্রথম শর্ত হলো আত্মসচেতন হওয়া ৷ আত্মসচেতন হওয়ার প্রথম শর্ত হলো আত্ম সমালোচনা করা ৷ এটা যদি করতে পারো তাহলে আত্মসমালোচনা আসবে ৷ এরপর আসবে অন্বেষা ৷ সেই অন্বেষার সাথে নিজের অর্জনকে উন্নীত করো ৷ এই অর্জন থেকে একটা আলোকময় দীপ্তি আসে, সেটা থেকেই আত্মশক্তি আসে ৷ আত্মশক্তি এলে এটাকে ধরে রাখতে হয় ৷ আমরা অনেক সময় হতাশায় এটাকে নষ্ট করে ফেলি ৷ সুতরাং হতাশার বিরুদ্ধে নিজের শক্তিটাকে জাগ্রত রাখা প্রয়োজন ৷

তোমরা অনেকেই বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে যুক্ত ৷ কিন্তু এখানে ড. বদিউল আলম মজুমদার একটা বিষয় যুক্ত করার চেষ্টা করছেন ৷ তা হলো আমাদের অধিকার কি? তুমি যে স্কুলে পড় সেখানে তোমার কি অধিকার আছে? এই অধিকার অর্জনে চেতনার প্রয়োজন আছে ৷ তেমনি তোমার এলাকায় যে স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র আছে, ইউনিয়ন পরিষদ আছে সেখানে মানুষের অধিকার কি?

এই অধিকার চেতনাটা কিন্তু আত্মশক্তির সাথে সম্পৃক্ত ৷ একজন নাগরিক হিসেবে আমার কি অধিকার আছে সেটা আমাকেই জেনে নিতে হবে ৷ তোমাদের অনেকের বয়স ১৮ বছরের উপরে অর্থাত্‍ তোমরা ভোটার ৷ ড. বদিউল আলম মজুমদারসহ আমরা চেষ্টা করছি, ভোটাধিকারের মাধ্যমে যাতে সাধারণ মানুষ একজন সত্‍ ও যোগ্য প্রতিনিধিকে নির্বাচন করতে পারে ৷ তাহলে তোমার প্রথম কাজ হলো তুমি ভোটার হয়েছো কি-না? এরপর তোমার এলাকায় যে ভোটার তালিকা আছে, তা তুমি জান কি-না? সেই তালিকা সঠিক আছে কি-না তা জানা ৷ এর সঙ্গে আরো একটি বিষয় আছে তা হলো ঐ এলাকায় যে জনপ্রতিনিধি হবে তাকে জানো কি-না?

আমাদের সামনে বেশি সময় নেই ৷ আমরা সুন্দর দেশ চাই ৷ আমরা আমাদের ভবিষ্যত্‍ প্রজন্মের জন্য এমন একটা দেশ গড়ার অঙ্গীকার করছি যেখানে ক্ষুধাকে ক্ষুদ্র অর্থে দেখি না ৷ ক্ষুধা নানান রকমের হয় ৷ আমার ক্ষুধা হলো সমগ্র বিশ্বের জ্ঞানকে আমি কতটুকু জানি সেই ক্ষধা ৷ সেই ক্ষুধা আমার যে শারীরীক ক্ষধা আছে তার বাইরে ৷ তাহলে সেই ক্ষুধা নিয়ে যদি আমাকে চিন্তা করতে হয় তাহলে আমার দেশকে এমনিভাবে এগিয়ে নিতে হবে যেখানে আমার অধিকার হলো, ‘মানুষ হিসেবে আমার অধিকার’ ৷ সেই অধিকার অর্জনের জন্য যে প্রতিষ্ঠান আছে, সেগুলোতে যাতে যোগ্য ও সত্‍ লোক যেতে পারে, সে প্রচেষ্টায় সামিল হওয়া ৷

আমরা করব জয়-৪৪

Advertisements

One comment

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়েছে।